নজরদারী বাড়াতে হবে -পুলিশ সুপার

স্টাফ রিপোর্টার
পুলিশ সুপার ও পাউবোর ফসলক্ষা বাঁধ নির্মাণ বাস্তবায়ন ও তদারকি জেলা কমিটির সদস্য মো. বরকতুল্লাহ খান বুধবার দিনভর দিরাই-শাল্লার বিভিন্ন হাওর পরিদর্শন করেছেন।
পুলিশ সুপার দিরাই উপজেলার চরনারচর ইউনিয়নের কালিকুটা ও উদগল বিল হাওরের বেশ কয়েকটি বাঁধ ও শাল্লা উপজেলার হবিবপুর ইউনিয়নের কয়েকটি বাঁধ পরিদর্শন করেন।
তিনি উদগল বিল হাওরের ৪০, ৪২, ৪৫, ৫০, ৫২, ৫৩ ও কালীকুটা হাওরের ৫১ নং প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন করেন। বাঁধ পরিদর্শনকালে
তিনি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি (পিআইসি) এর সভাপতি-সদস্যসচিব ও স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলেন।
বাঁধ পরিদর্শনকালে পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান বলেন,‘ বাঁধ নির্মাণ কাজ পুরোদমে চলছে, তবে কাজের গুণগত মান আরও বৃদ্ধি করতে হবে। বাঁধের কাজ শুধুমাত্র জেলা ও উপজেলা কমিটিকেই তদারিক করলে হবে না। বাঁধের উপকারভোগী কৃষকসহ স্থানীয় সচেতন লোকদের এবিষয়ে এগিয়ে আসতে হবে এবং নজরদারী বাড়াতে হবে। হাওরের এই বিশাল কর্মযজ্ঞে সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। তাহলেই সোনালী ফসল ঘরে তোলা সম্ভব হবে। ’
উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,‘ বাঁধ কাজ সবস্থানেই শুরু হয়েছে। তবে কাজের মান ভাল নয়, বাঁধের স্লোপ কম। মাটি ভাল করে দুরমুজ দেয়া হয়নি। কিছু কিছু স্থানে বাঁধের কাছ থেকে মাটি তোলা হয়েছে। এসব বিষয় উপজেলা কমিটিতে গুরুত্বসহকারে দেখতে হবে।’
বাঁধ পরিদর্শনকালে পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু তারেক, শাল্লা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল মুক্তাদির, সহকারি পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, ডিআইও-টু আব্দুল লতিফ তরফদার, ডিবি পুলিশের ওসি কাজী মুক্তাদির হোসেন, বাঁধ নির্মাণ বাস্তবায়ন ও তদারকি জেলা কমিটির সদস্য দৈনিক আমাদেরসময়ের জেলা প্রতিনিধি বিন্দু তালুকদার, শাল্লা প্রেসক্লাবের সভাপতি পিসি দাস প্রমুখ।