নদী রক্ষার অভিযান অব্যাহত থাকবে-পরিকল্পনামন্ত্রী

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরের সর্ববৃহৎ নলুয়া হাওরের বোরো ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধ প্রকল্পের কার্যক্রম আনুষ্ঠানভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে।
শুক্রবার দুপুর ১২টায় নলুয়া হাওরের ভুরাখালী এলাকায় নলুয়া হাওর পোল্ডার-১ এর আওতাধীন বেড়িবাঁধের ৭ ও ৮ নম্বর প্রকল্পের উদ্বোধন করেন সুনামগঞ্জ-৩ আসনের স্থানীয় সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান ।
এসময় মন্ত্রী স্থানীয় গনমাধ্যমকর্মীদের বলেন, বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ। আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতত্বে সরকার হাওরাঞ্চলের মানুষের উন্নয়নে কাজ করছে।
তিনি বলেন, হাওরের ফসল রক্ষায় সরকার কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিচ্ছে। এরমধ্যেই সরকার নদ-নদী, খাল-বিল খননে বড় বড় প্রকল্প হাতে নিয়েছে। তিনি বলেন, আপনারা জানেন নদী রক্ষায় সরকার সারা দেশে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। হাওরের বেড়িবাঁধ নির্মাণ কাজ সঠিকভাবে নীতিমালা অনুয়ায়ী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করতে হবে।
এজন্য সবাইকে এগিয়ে আসার জন্য তিনি আহবান জানান।
এরপূর্বে তিনি ভুরাখালী গ্রামে উদ্বোধনী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, হাওরে কোনো ধরনের অনিয়ম, গাফিলতি, দুর্নীতি বরদাশত করা হবে না। কারণ কৃষকের টাকায় হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধ নির্মাণ হয়। এটি মনে রাখতে হবে কাজের দায়িত্বে থাকা দায়িত্বশীলদের। এখানে কোনো ধরণের ছাড় দেয়া হবে বলে তিনি হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করেন।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকার হাওরাঞ্চলের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে। গ্রামের ঘরে ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে বিদ্যুৎ। স্বাস্থ্য সেবা, চিকিৎসা, বিশুদ্ধ পানি, স্যানিটেশন ব্যবস্থাসহ নাগরিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে এই সরকার।
জগন্নাথপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজুল আলম মাসুমের সভাপতিত্বে ও তথ্যসেবা কেন্দ্র কর্মকর্তা লুফিয়া জান্নাতের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুল নবী, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান, সুনামগঞ্জের পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু।
পরে মন্ত্রী জগন্নাথপুর উপজেলা জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও স্থানীয় প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা সদরের স্বরূপ চন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সাতশত পরিবারের মধ্যে গভীর নলকূপের টোকেন ও তিনশত পরিবারের মধ্যে পাকা ল্যাট্রিন বিতরণ করেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহ্ফুজুল আলম মাসুমের সভাপতিত্বে ও উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আব্দুর রব সরকারের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, পুলিশ সুপার হায়াতুন নবী, জেলা আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি সিদ্দিক আহমদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু প্রমুখ।
এছাড়াও পরিকল্পনামন্ত্রী জগন্নাথপুর আর্টস্কুলের অধ্যক্ষ চিত্রশিল্পী প্রয়াত প্রণব বনিকের ম্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।
উপজেলা পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র জানায়, এবার জগন্নাথপুরে ৪৫টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি (সিআইসি) গঠনের মাধ্যমে ৪২.৩১০ কিলোমিটার কাজ হবে। এতে বরাদ্দ পাওয়া গেছে তিন কোটি টাকা।