নাদের, কালাম ও আক্তার জয়ী

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নাদের বখত ২য় বারের মতো ২১,৬৬৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মুর্শেদ আলম পেয়েছেন ৫,৮৮৫ ভোট। ইসলামী আন্দোলনের মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ্ পেয়েছেন ২৩১৪ ভোট।
নির্বাচনে পৌরসভার ১৯টি কেন্দ্রে ৩০ হাজার ২৮০ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। মোট ভোটারদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৫ হাজার ২৭১ জন এবং নারী ভোটার ১৫ হাজার ৯ জন।
প্রসঙ্গত, এর আগে সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আয়ুব বখ্ত জললুল মৃত্যুবরণ করায় ২০১৮ সালের ২৯ মার্চ সুনামগঞ্জ পৌরসভার উপ-নির্বাচনে প্রয়াতের ছোট ভাই নাদের বখ্ত জয়ী হন। তিনি পেয়েছিলেন ১৬ হাজার ৩৫২ ভোট। তাঁর নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান গণিউল সালাদীন পেয়েছেন ৯ হাজার ৪৮৫ ভোট। বিএনপির প্রার্থী দেওয়ান সাজাউর রাজা চৌধুরী পেয়েছিলেন ১ হাজার ৮০৭ ভোট।
জগন্নাথপুরে পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র (বিএনপি বিদ্রোহী) মেয়র প্রার্থী আক্তার হোসেন ৮৩৭৮ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগ মনোনীত বর্তমান মেয়র মিজানুর রশীদ ভূইয়া ৮০১৮ ভোট পেয়েছেন। বিএনপির প্রার্থী হারুনুজ্জামান পেয়েছেন ৮১৮ ভোট। অপরদিকে ছাতক পৌরসভায় টানা চতুর্থবারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আবুল কালাম চৌধুরী। তিনি পেয়েছেন ১২ হাজার ৮২৩ ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রাশিদা আহমদ ন্যান্সি পেয়েছেন ৭ হাজার ৯০৮ ভোট। বেসরকারিভাবে প্রাপ্ত ফলাফলে নৌকা প্রতীকে আবুল কালাম চৌধুরী ৪ হাজার ৯১৫ ভোট বেশি পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
১৯৯৯ সালে এ পৌরসভায় প্রতিষ্ঠাকালিন নির্বাচনে পৌর চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল ওয়াহিদ মজনু। পরবর্তি ২০০৫, ২০১১ এবং ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আবুল কালাম চৌধুরী টানা বিজয় লাভ করেন। জন্মলগ্ন থেকেই এ পৌরসভার মেয়র পদ আওয়ামীলীগের দখলে রয়েছে। বিগত প্রতিটি নির্বাচনেই বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেও সফল হতে পরেন নি। যে কারণে ছাতক পৌর এলাকাকে আওয়ামীলীগের দুর্গ হিসেবেই অনেকেই মনে করেন।
এর আগে ছাতক পৌরসভায় সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৫ সালে ৩০ ডিসেম্বর। এ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে ১০ হাজার ৮২৬ ভোট পেয়ে হ্যাট্রিক বিজয় লাভ করেন আবুল কালাম চৌধুরী। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল ওয়াহিদ মজনু পান ৪ হাজার ৬৫১ ভোট এবং বিএনপির মনোনয়নে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ৩ হাজার ৩৫০ ভোট পেয়ে শামছুর রহমান শামছু ছিলেন ৩য় স্থানে।
আবুল কালাম চৌধুরী ২০০৪ সালের পৌর নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ছাতা প্রতীক নিয়ে পৌর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। দায়িত্বে ছিলেন ২০১১ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ২০১১ সালের নির্বাচনে আবুল কালাম চৌধুরী কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন এবং দায়িত্ব পালন করেন ২০১৬ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। পরবর্তীতে ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে দলীয় প্রতীক নৌকা নিয়ে তিনি ফের বিজয়ী হয়েছিলেন।
সুনামগঞ্জ পৌরসভার রিটার্নিং কর্মকর্তা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলাম এবং জগন্নাথপুর ও ছাতক পৌরসভার রিটার্নিং কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার সুনামগঞ্জে আওয়ামী লীগের নাদের বখ্ত, ছাতকে আওয়ামী লীগের আবুল কালাম এবং জগন্নাথপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী আক্তার হোসেন বিজয়ী হবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।