নিলাদ্রী নয় ‘শহীদ সিরাজ লেক’ বলুন

স্টাফ রিপোর্টার
প্রখ্যাত পরিচালক প্রযোজক হানিফ সংকেতের পরিচালনায় দেশের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’ ধারণ করা হবে মেঘালয়ের পাদদেদের উপজেলা তাহিরপুরের টেকেরঘাটের শহীদ সিরাজ লেকের পাড়ে।
কিন্তু কিছু অতি উৎসাহী ব্যক্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সিরাজ লেক এর পরিবর্তে ‘নিলাদ্রী লেক’ বলে প্রচারণা চালাচ্ছেন। বিষয়টি অনেকের দৃষ্টি আকর্ষণ হওয়ায় দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন। মুক্তিযুদ্ধ চর্চা ও গবেষণা কেন্দ্র, সুনামগঞ্জ’এর পক্ষ থেকে শনিবার দুপুরে টেকেরঘাটে গিয়ে ইত্যাদি কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।
সংগঠনের জামালগঞ্জ উপজেলা শাখার আহ্বায়ক আকবর হোসেন বলেন,‘মুক্তিযুদ্ধে শহীদ সিরাজের নামে এই লেক’এর নামকরণ করা হয়েছে। লেক’এর তীরে নামকরণের একটি নোটিশ বোর্ডও রয়েছে। এরপরও কেউ কেউ নিলাদ্রি লেক বলে প্রচার করছেন। বিষয়টি আমাদের নজরে আসায় আমরা ইত্যাদি কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি লিখিতভাবে অবগত করেছি। তারা বিষয়টি আমলে নিয়েছেন ও ইত্যাদিতে শহীদ সিরাজ লেক বলে প্রচার করবেন বলে আশ্বস্থ করেছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন আহমেদ।’
মুক্তিযুদ্ধ চর্চা ও গবেষণা কেন্দ্র সুনামগঞ্জের আহবায়ক অ্যাড. বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু বলেন,‘ ১৯ নভেম্বর সোমবার ইত্যাদি ম্যগাজিন অনুষ্ঠানটি ধারণ হচ্ছে টেকেরঘাটে শহীদ সিরাজ লেকের পাড়ে। অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে এটাকে নিলাদ্রি লেক বলে স্ট্যটাস দিচ্ছেন। নিলাদ্রি লেক বলে প্রচার দেয়া মোটেও সঠিক হচ্ছে না। শহীদ সিরাজুল ইসলাম বীর বিক্রম ১৯৭১ সালে ছিলেন কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল কলেজের ছাত্র। তাঁর মূল বাড়ি ইটনা উপজেলায়। ১৯৭১ সালে তরুণ সিরাজ মুক্তিযুদ্ধে যোগ দিয়ে টেকেরঘাট সাব সেক্টরে থেকে যুদ্ধ করেন। জামালগঞ্জ থানা মুক্ত করতে গিয়ে তিনি শহীদ হন। টেকেরঘাটেই তাঁকে কবর দেওয়া হয়। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের বিভিন্ন সংগঠন, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম ও মুক্তিযোদ্ধাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসন লেকটির নামকরণ করেছেন ‘শহীদ সিরাজ লেক’। আমরা অনুরোধ করব যারাই স্ট্যটাস দিবেন এটাকে শহিদ সিরাজ লেক হিসাবে যেন লিখেন।’
উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে ৫ নং সেক্টরের টেকেরঘাট সাব-সেক্টরের হেডকোয়ার্টার ছিলো তাহিপুরের টেকেরঘাট। এখান থেকেই ভাটি অঞ্চলের অধিকাংশ অপারেশন পরিচালনা করতেন মুক্তিবাহিনীর যোদ্ধারা। টেকেরঘাট থেকে যুদ্ধে গিয়ে বহু মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হয়েছেন, তাঁদের অনেকের লাশ টেকেরঘাটেই সমাহিত করা হয়েছে। এদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন শহীদ সিরাজ বীরবিক্রম। যিনি পার্শ্ববর্তী জামালগঞ্জ থানা মুক্ত করতে গিয়ে প্রাণ বিসর্জন দিয়েছেন। তাঁর প্রতি সম্মান জানিয়ে পরিত্যক্ত লাইম স্টোন কোয়ারির লেকের নামকরণ করা হয়েছে ‘শহীদ সিরাজ লেক’। এই লেকের পাড়ে শহীদ সিরাজ সহ বহু শহীদের কবরও রয়েছে। জেলা প্রশাসন থেকে ইতোমধ্যে ‘শহীদ সিরাজ লেক’ ঘোষণা করা হয়েছে এবং লেকের পাড়ে নোটিশ বোর্ড লাগানো হয়েছে।