নৌকার মাঝি হবো আমিই গুজবে কান দিবেন না -এমএ মান্নান

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করে, সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে। মানুষের ভাগ্য বদলের জন্য কাজ করে। শেখ হাসিনা হাওরপাড়ের মানুষের খবর রাখেন, তাদের কথা চিন্তা করেন। সকল মানুষকে সুখে রাখতে আওয়ামী লীগের বিকল্প নেই। আমি আপনাদের প্রতিনিধি। আমাকে শেখ হাসিনা অত্যন্ত স্নেহ করেন, চিনেন, জানেন। আমার বিরুদ্ধে কোনো রিপোর্ট তাঁর কাছে নাই। সুতরাং আপনারা কেউ গুজবে কান দিবেন না। নৌকার মাঝি হয়ে আমিই আপনাদের মাঝে আসবো। আমি বিশ্বাস করি উন্নয়ন যে হারে হচ্ছে, সাধারণ মানুষ আমাকে আবার সংসদে পাঠাবেন। আমি আপনাদের সেবক হয়ে সারা জীবন কাজ করতে চাই।’
এম এ মান্নান আরো বলেন, ‘গত বছর হাওর তলিয়ে যাওয়ার পর সরকার কথা দিয়েছিলো একজন মানুষকেও অভুক্ত রাখবে না। সারা বছর ঘরে চাল দিয়েছে। আপনারা শেখ হাসিনার সরকারকে, তার প্রতিনিধিকে নির্বাচিত করুন। উন্নয়ন অব্যাহত রাখুন।’
সাধারণ মানুষকে উদ্দেশ্য করে মান্নান বলেন, ‘একটি কুচক্রী মহল আমার সাথে দীর্ঘদিন ঘুরঘুর করেছে অবৈধ সুবিধা নেওয়ার আশায়। আমি তাদের সে সুযোগ না দেওয়ায় এখন আমার বিরুদ্ধে প্রোপাগান্ডা চড়াচ্ছে। এসব চতুর লোকদের কথায় কান দিবেন না। এরা উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে অন্যের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছে। তাদেরকে বহিষ্কার করুন।’ শিমুলবাঁক ইউনিয়নের শিমুলবাঁক, মুরাদপুর, বাহাদুরপুর, লালুখালী, থলেরবন্দ ও আক্তাপাড়া গ্রামের পল্লীবিদ্যুতের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।
শুক্রবার বিকাল ৪ টায় শিমুলবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জিতুর সভাপতিত্বে ও ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক গোলাম নূরের পরিচালনায় মুরাদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন ঈদগাহ মাঠের বিদ্যুৎ উদ্বোধনী সভায়
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুতের জেনারেল ম্যানেজার অখিল কুমার সাহা, এমএ মান্নান পুত্র শাহাদাৎ মান্নান অভি, জেলা পরিষদের সদস্য ফারহানা ইয়াছমিন সীমা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান, পল্লী বিদ্যুতের এরিয়া পরিচালক ফরিদুর রহমান ফরিদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাওলানা আবদুল কাইয়ূম, জয়কলস ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাসুদ মিয়া, আওয়ামীলীগ নেতা মাস্টার ওসমান গনি, আফতাব মিয়া, উপজেলা কৃষকলীগের আহ্বায়ক ফয়জুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি বোরহান উদ্দিন দোলন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম শিপন, ভাটিপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান, কৃষকলীগ নেতা শফিক মিয়া ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক আবদুল্লাহ আল মামুন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি তহুর আলী, দক্ষিণ সুনাসগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্তাকর্তা শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া, আওয়ামীলীগ নেতা জিএম সাজ্জাদুর রহমান, তেরাব আলী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল বাসিত সুজন, পাথারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমিনুর রশিদ, দরগাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান মনির উদ্দিন, পূর্ব পাগলা ইউপি চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর রাজনৈতিক সচিব হাসনাত হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি জুবেল আহমদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মনিজ্জামান সুজন, স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হযরত আলী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক নূর আলম, ত্রাণ সম্পাদক শাকির আহমদ, সম্পাদক যুবলীগ নেতা সুহেল মিয়া, উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এইচ আর হাবিব, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আবু সালেহ্ জনি, ছাত্রলীগ নেতা ছালেহ্ আহমদ, জুয়েল আহমদ ও সুমন তালুকদার প্রমুখ।