নৌকায় মিজানুর ধানের শীষে রাজু

আলী আহমদ, জগন্নাথপুর
জগন্নাথপুর পৌরসভার উপনির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক পৌর চেয়ারম্যান মিজানুর রশিদ ভূঁইয়া। আর বিএনপির মনোনয়ন পেয়েছেন জগন্নাথপুর উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি যুক্তরাজ্য বিএনপির সহ সভাপতি রাজু আহমদ।
দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, গত সোমবার রাতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় জগন্নাথপুর পৌরসভার উপনির্বাচনে মেয়র পদে মিজানুর রশিদ ভূঁইয়াকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকমল হোসেন এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রয়াত মেয়র আব্দুল মনাফের ছেলে আবুল হোসেন সেলিম অংশ নিলে চ্যালেঞ্জ হতে পারে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর জন্য। অপর দিকে বিএনপির মনোনয়ন দৌঁড়ে ছিলেন বিএনপি নেতা ক্রীড়া সংগঠক আবিবুল রাবী আয়হান ও উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতা রাজু আহমদ। গত সোমবার বিকেলে বিএনপি রাজু আহমদকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে। জগন্নাথপুর উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে বিদ্রোহী হিসেবে আবিবুল বারী আয়হান নিবার্চনে অংশ নিতে পারেন। এমন প্রস্তুতি চলছি বলে তাঁর সমর্থকরা জানিয়েছেন।
বিএনপির দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্ত রাজু আহমদ বলেন, বিএনপির প্রার্থী হিসেবে আমাকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সকল ভেদাভেদ ভুলে দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে কাজ করার জন্য তিনি আহবান জানিয়েছেন।
আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী মিজানুর রশিদ ভূঁইয়া বলেন, আওয়ামী লীগ উন্নয়নবাদ্ধব সরকার। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে উন্নয়নের কর্মযজ্ঞ চলছে। সরকারের ধারবাহিক উন্নয়ন অগ্রযাত্রা এগিয়ে নিতে জনগণ নৌকা প্রতিককে বিজয়ী করবেন।
আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত জগন্নাথপুর পৌরসভার সদ্য প্রয়াত মেয়র আব্দুল মনাফের ছেলে আবুল হোসেন সেলিম বলেন, আমি আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। আমার বাবাকে পৌরবাসী নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছিলেন। দায়িত্ব পালনকালে বাবা আকস্মিকভাবে মারা যান। তৃণমূলের দাবির প্রেক্ষিতে বাবার পদে দলীয় মনোনয়ন আমি চেয়েছিলাম। কিন্তুু কেন্দ্রে আমার নাম পাঠানো হয়নি। ভোটারদের চাপে আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করব।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান জানান, জগন্নাথপুর পৌরসভার উপনির্বাচনে এখন পর্যন্ত মেয়র পদে ৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। পৌরসভার মোট ভোটার ২৭ হাজার ১শত ৪২জন।
প্রসঙ্গত, জগন্নাথপুরের পৌর মেয়র আব্দুল মনাফের গত ১১ জানুয়ারি মৃত্যুবরণ করলে এই পদটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন গত ১৬ ফেব্রুয়ারি তফসিল ঘোষণা করেছেন। তফসিল অনুয়ায়ী ২৭ ফেব্রুয়ারি মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন। ১ মার্চ বাছাই, ৮ মার্চ প্রার্থিতা প্রত্যাহার এবং ২৯ মার্চ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।