নয়া মঞ্চে রঙিন স্বপ্ন

সু.খবর ডেস্ক
নতুন মঞ্চ, এর আগে নামা হয়নি বাংলাদেশের মেয়েদের। প্রথমবারের মতো ক্যারিবীয় দ্বীপে পা পড়তে যাচ্ছে তাদের। তাতে চিন্তা একটু হওয়ারই কথা। তবে সেই চিন্তার মাঝে রঙিন স্বপ্নও দেখছেন সালমারা। কাল ভোরে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ বাংলাদেশের। ওই ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশের টি২০ বিশ্বকাপ মিশন।
কাগজে-কলমে উইন্ডিজের চেয়ে অনেক পিছিয়ে বাংলাদেশ। টি২০ বিশ্বকাপে সর্বশেষ দুই দেখায় দু’বারই হেরেছে টাইগ্রেসরা। তবে এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের অচেনা কন্ডিশনে যত দ্রুত সম্ভব মানিয়ে নেওয়ার আশা বাংলার মেয়েদের। ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে তেমন আভাস দিলেন অধিনায়ক সালমা খাতুন, ‘আমরা ওয়েস্ট ইন্ডিজে ১০-১২ দিন আগে আসি। এটার কারণ হলো, কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়া। যত দূত পারা যায় ক্যারিবিয়ান কন্ডিশনের সঙ্গে আমাদের মানিয়ে নিতে হবে। পাশাপাশি ভালো কিছু পেতে হলে নিজেদের সর্বোচ্চটুকু দিতে হবে।’
বিশ্বকাপের আগে ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছিল বাংলাদেশ। সে প্রস্তুতিটা ভালো হয়নি। টি২০ সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জেতে পাকিস্তানের মেয়েরা। তবে একমাত্র ওয়ানডেতে জয়োল্লাস করেছিলেন জাহানার-রুমানারা।
খারাপের সঙ্গে ভালোও আছে। এ বছর এশিয়া কাপে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছিলেন বাংলাদেশের মেয়েরা। মালয়েশিয়ায় শক্তিশালী ভারতকে হারিয়ে প্রথম এশিয়া কাপের শিরোপা জেতেন তারা। দলের স্পিন আক্রমণটাও চমৎকার। সালমার প্রত্যাশা সেরাটা দিতে পারলে উইন্ডিজেও রঙিন প্রাপ্তি হাতে মিলবে, ‘আমাদের স্পিন বিভাগ খুবই শক্ত। একই সঙ্গে পেসাররাও ভালো করছে। এখন দেখার বিষয়, উইকেটে কেমন সুবিধা পান তারা। আমি আশা করি বোলাররা তাদের মেলে ধরতে পারবে।’
টিম ম্যানেজার নাজমুল আবেদীনের কণ্ঠেও কন্ডিশন নিয়ে একটু অস্বস্তি। অবশ্য তিনি মনে করছেন, এটা খুব বেশি সমস্যায় ফেলবে না বাংলাদেশকে, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা ও আয়ারল্যান্ডের মাটিতে আমাদের স্পিনারদের প্রভাব পড়েছিল। ওয়েস্ট ইন্ডিজ যদিও একটু ভিন্ন, তার পরও আমার বিশ্বাস, খুব একটা সমস্যা হবে না।’
আজ থেকে শুরু হওয়ার নারী টি২০ বিশ্বকাপ শেষ হবে ২৪ নভেম্বর শিরোপা ফয়সালার মধ্য দিয়ে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের অ্যান্টিগা, সেন্ট লুসিয়া ও গায়ানা মিলে মোট ২৩টি ম্যাচ মাঠে গড়াবে। টুর্নামেন্টের ষষ্ঠ আসরে দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে অংশ নেবে দশ দল। প্রতি গ্রুপ থেকে দুটি করে দল সেরা চারে খেলবে। সেখান থেকে দুটি দল ফাইনালের টিকিট হাতে পাবে। ‘এ’ গ্রুপে বাংলাদেশের সঙ্গে আছে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ, শ্রীলংকা, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ড। গ্রুপ ‘বি’ তে আছে অস্ট্রেলিয়া, ভারত, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান ও আয়ারল্যান্ড।
সূত্র : সমকাল