পঁচিশে বৈশাখে

এস ডি সুব্রত


হে দেশপ্রেমিক কবি
তুমি বলেছিলে জন্ম নিলেই হয়না জন্মভূমি
দেশকে ভালবাসতে হয় অন্তরের গহীন ভেতর
আপনার দেশ হয়না আপন
স্বদেশ ভাবনা যদি না হৃদয়ে গাঁথে,

হে প্রাণের কবি
দেবত্বে নয় ছিলে মনুষত্বে বিশ্বাসী
মানুষের ভালবাসায় ছিল অগাধ নির্ভরতা
নিস্তরঙ্গ নদী আর নীরব প্রকৃতির মাঝে
গোধূলির সৌন্দর্যে অপার মুগ্ধতা খুঁজেছিলে,

হে বিশ্বকবি
সৃষ্টির সৌন্দর্য আর আনন্দ বোধের
পরিপূর্ণ রূপ রস আস্বাদনে
বিশ্বজীবনের মধ্যে ব্যদক্তিজীবনের
স্বাদ পেতে সমর্পণ করেছ নিজকে তুমি,

হে কবি গুরু
তোমার হৃদয়ের অনুভুতির মধ্যে
দেখেছ প্রাণের দেবতাকে
অপূর্ব ভাবরসে ব্যতক্ত করেছ অভিব্যলক্তি
সীমার মাঝে অসীম তুমি,

হে মহান কবি
অভিজাত পরিবারে জন্ম নিয়েছ
তবু মনরস আহরন করেছ
মধ্যমবিত্তের সমাজ জীবন থেকে
তুলে ধরেছ মধ্যতবিত্তের কৃষ্টি সংস্কৃতি,

হে মানবতার কবি
শুধু দাওনি গল্প কবিতা উপন্যাস
কালজয়ী অনন্য্ গীতিকার তুমি
দিয়ে গেছে হৃদয়হরা রবীন্দ্রগীতি
তুমি নাঠ্য কার প্রতিভাবান চিত্র শিল্পী,

হে ক্ষণজন্মা কবি
বিশ্বের দরবারে বাংলাভাষা কে
দিয়ে গেছ সুউচ্চ আসন তুমি
তোমার শুভ জন্মতিথি তে
জানাই প্রণাম শতকোটি।

হে মনুষত্বের কবি
পঁচিশে বৈশাখে বাজুক মঙ্গলশাঁখ
তোমার মহিমা থাকুক চিরকাল অম্লান
তোমার সত্যসিন্ধু প্রেমজলে
মহামারী মুক্ত হোক প্রিয় এ বসুন্ধরা।