পৈন্দা খালের উপর সেতু নির্মাণের দাবি

আকরাম উদ্দিন
সদর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের একাধিক গ্রামের বেশিরভাগ জনগণ শহরের সাথে সহজ যোগাযোগ মাধ্যম হিসাবে জানিগাঁও-নুরুল্লাহ গ্রামের ভেতর দিয়ে পৈন্দা-জয়নগর-মোহনপুর যাওয়া আসার বাইপাস সড়ক ব্যবহার করে আসছেন। সুনামগঞ্জ-পৈন্দা-মোহনপুর আসা-যাওয়ায় পুরান পৈন্দা গ্রাম এলাকায় একটি খাল থাকায় সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এই খালের উপর সেতু নির্মাণ করলে লক্ষণশ্রী ও মোহনপুর ইউনিয়নের জনগণ সহজে যোগাযোগ রক্ষা করতে পারবেন। এই কারণে খালের উপর সেতু নির্মাণের দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের।
শহরতলীর লক্ষণশ্রী ইউনিয়নের জানিগাঁও-নুরুল্লাহ গ্রামের ভেতর দিয়ে পৈন্দা-জয়নগর-মোহনপুর যাওয়া আসার অন্যতম বাইপাস সড়কটি দেশ স্বাধীনের পর থেকে ব্যবহার হয়ে আসছে। এই সড়কে আসা-যাওয়ায় পুরান পৈন্দা গ্রাম এলাকায় খাল পারাপারে ফেরি নৌকা ব্যবহার করতে হচ্ছে। এই খালের উপর সেতু না থাকায় দুই ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের ভোগান্তি বেড়েই চলেছে।
এলাকাবাসী জানান, জেলা শহর থেকে বিশাল এলাকা ঘুরে লক্ষণশ্রী ও কাঠইর ইউনিয়ন হয়ে পৈন্দা বাজার আসতে হয়। আবার মোহনপুর গ্রাম হয়ে জয়নগর বাজার যেতে হয়। এতে সময় লাগে অনেক বেশি। কিন্তু জানিগাঁও-নুরুল্লাহ গ্রামের ভেতর দিয়ে পৈন্দা-মোহনপুর-জয়নগর বাজার আসা যাওয়া সময় লাগে কম এবং সহজ যোগাযোগ মাধ্যম।
পৈন্দা বাজারে রয়েছে ইউপি কার্যালয়, ইউনিয়ন ভূমি অফিস ও কৃষি অফিস। এই হিসাবে জনগুরুত্বপূর্ণ পৈন্দা বাজার এলাকা।
ইউপি সদস্য মামুনুর রশিদ বলেন, ‘পৈন্দা ও মোহনপুর গ্রামের মানুষ জেলা শহরে আসতে খুবই কষ্ট হয় এবং খরচ ও সময় বেশি লাগে। অথচ পৈন্দা বাজারে রয়েছে সরকারি একাধিক প্রতিষ্ঠান। এই পৈন্দা খালে একটি সেতু নির্মাণ জরুরি প্রয়োজন।’
মোহনপুর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ বলেন, ‘মোহনপুর ইউনিয়ন অফিসে পৈন্দা গ্রামে মানুষ আসা যাওয়া করতে হয় কাঠইর গ্রাম এলাকা ঘুরে। এতে সময় ও খরচ হয় বেশি। মোহনপুর ইউনিয়ন তথা জামালগঞ্জ উপজেলার মানুষের অন্যতম পুরাতন বাইপাস সড়ক এটি। পুরান পৈন্দা গ্রামের খালে সেতু নির্মাণ হলে কয়েক হাজার মানুষের যোগাযোগ সহজ হবে।’
মোহনপুর ইউপি’র বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নুরুল হক বলেন, ‘আমার ইউনিয়নের উন্নয়নের জন্য একাধিকবার এমপি সাহেবকে নিয়ে এসেছি, বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেছি। পুরান পৈন্দা খালের উপর সেতু নির্মাণের জন্য বেশ আগে থেকে আমি এবং স্থানীয় ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে এমপি মহোদয়ের সাথে যোগাযোগ রেখে আসছি। পরে আমাদের এমপি পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ সাহেব এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলীকে নিয়ে এলাকায় এসে ম্যাজারমেন্ট করে সকল প্রকার কাগজপত্র ঠিক করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দপ্তরে পাঠিয়ে দিয়েছেন। এখন আমরা সেতুটি বাস্তবায়নের অপেক্ষায় আছি।’
সদর উপজেলা এলজিইডি’র প্রকৌশলী মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘সদর উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের পুরান পৈন্দা এলাকায় প্রায় ১শ’ মিটার দৈর্ঘ্যরে সেতু নির্মাণ হবে। সেতু নির্মাণ বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে।’