পৌর এলাকার টিউবওয়েলগুলো দ্রুত সংস্কার করুন

সুনামগঞ্জ শহরবাসীর নিরাপদ পানীয় জল প্রাপ্তিকে আরও জটিল করে তোলেছে বিদ্যমান টিউবওয়েলগুলোর অকার্যকারিতা। সারা শহর জুরে যেসব টিউবওয়েল ছিল একসময়, এবং যেগুলো শহরবাসীর পানীয় জলের একমাত্র অবলম্বন ছিল, সেগুলো এখন বিনষ্ট হয়ে পড়ে আছে। ফলে বিদ্যুৎহীনতার কারণে যখন পৌর পানি সরবরাহ বাধ্য হয়ে বন্ধ রাখতে হয় কিংবা মানুষ ব্যক্তিগত মোটর দিয়ে নিজেদের টিউবওয়েল থেকে পানি তুলতে পারেন না তখন পানীয় জলের দুর্ভোগ বেড়ে যায়ে বর্ণনাতীতরকমভাবে। শুক্রবার দিনের অধিকাংশ সময় বিদ্যুৎ না থাকা যুগপৎ তীব্র তাপদাহের কারণে শহরবাসীর দুর্ভোগ যন্ত্রণা নিয়ে দৈনিক সুনামগঞ্জের খবর গতকাল একটি সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ওই প্রতিবেদনে শহরের টিউবওয়েলগুলোর অকার্যকারিতার বিস্তারিত তথ্য দেয়া হয়েছে। ওই প্রতিবেদনে পৌরসভার কাউন্সিলর ও প্যানেল চেয়ারম্যানের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে যে, শহরে এখন অন্তত দেড় হাজার টিউবওয়েল রয়েছে যার ৫০০টির মতো অকেজো। অকেজো টিউবওয়েলগুলো মেরামতের উদ্যোগ গ্রহণের কথা তিনি বলেছেন। প্যানেল চেয়ারম্যান শহর জুরে দেড় হাজার টিউবওয়েলের যে তথ্য দিয়েছেন সেটি ব্যক্তিগত টিউবওয়েল মিলিয়ে নাকি শুধু পৌর এলাকায় সরকারি টিউবওয়েল সেই ব্যাখ্যা নেই। তবে ৫০০ টিউবওয়েল অকেজো থাকার কথাটি একেবারেই খাঁটি। এই টিউবওয়েলগুলো ঠিকঠাক থাকলে শহরবাসীকে কখনও বিশুদ্ধ পানীয় জলের জন্য মাঝেমধ্যেই হাহাকার করতে হত না।
শহরে পানির প্রাকৃতিক উৎসগুলো এখন বন্ধ হয়ে আছে। কোন বাসাবাড়িতে পুকুরের অস্তিত্ব নেই যেখানে দুই বা তিন দশক আগের কথা চিন্তা করলে দেখা যায় শহরের প্রতিটি বাসায়ই পুকুর ছিল। শহরে সরকারি যেসব বড় বড় পুকুর ছিল সেগুলোর কয়েকটি ভরাট করে ফেলা হয়েছে। যেগুলো এখনও ভরাট করা হয়নি সেগুলোর পানিও-ব্যবহারযোগ্য নয়। সুতরাং ঘর-গেরস্থালির কাজে ব্যবহার ও পানের জন্য এখন সকলকেই নিজেদের টিউবওয়েল এবং পৌর পানি সরবরাহ ব্যবস্থার উপর নির্ভর করতে হয়। পৌর পানি সরবরাহের সক্ষমতা ক্রমবর্ধমান পৌরনাগরিকের তুলনায় এখন যথেষ্ট নয়। তাই পানীয় জলের সংকট এখন শহরের একটি বড় সমস্যার নাম। এই সমস্যা অসহনীয় হয়ে উঠে বিদ্যুৎ বিভ্রাটজনিত কারণে। এ থেকে পরিত্রাণের পথ অনেক আছে। পৌরসভার নতুন পানি সরবরাহ প্রকল্প চালু হলে এই সমস্যা অনেকখানিই দূর হয়ে যাবে। কিন্তু বিভিন্ন পাড়া-মহল্লা কিংবা হাট-বাজারে যেসব অকেজো টিউবওয়েল রয়েছে সেগুলোকে কার্যক্ষম করা একান্ত প্রয়োজন। প্রতিদিন শহরে বাইরে থেকে যেসব মানুষ আসেন এবং যাদের সংখ্যা বিপুল পরিমাণের, তাদের এবং বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও হোটেল রেস্টুরেন্টের পানির জন্য টিউবওয়েলই একমাত্র ভরসা। টিউবওয়েলের অভাবে এইসব জায়গায় নিরাপদ পানির সংকট তীব্রতা পাবে যার প্রভাব পড়বে জনস্বাস্থ্যের উপর। শহরে প্রতিদিন আসা এইসব ভাসমান মানুষের পানির চাহিদাটিও আমাদের চিন্তায় রাখতে হবে।
সুতরাং পৌর কর্তৃপক্ষের নিকট আমাদের আবেদন, শহরের বিভিন্ন পাড়া মহল্লা ও হাট-বাজারে অবস্থিত টিউবওয়েলগুলো দ্রুত সংস্কার করে ব্যবহার উপযোগী করার উদ্যোগ গ্রহণ করুন। যেসব মহল্লায় টিউবওয়েল নেই সেখানে নতুন টিউবওয়েল বসানোর ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। এতে করে মানুষের মধ্যে পানির জন্য কোন হাহাকার তৈরি হবে না। হুমকিগ্রস্ত জনস্বাস্থ্যও কিছুটা শংকামুক্ত অবস্থায় থাকবে।