প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১, আহত ৮ – আটক ১০

স্টাফ রিপোর্টার
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ধামাই বিল জলমহাল দখলকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের দুইদফা হামলায় ১ জন নিহত এবং ৮ জন আহত হয়েছেন। বৃহিস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬ টা থেকে সাড়ে ৮ টার মধ্যে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ ।
স্থানীয় লোকজন জানান, শিমুলবাক ইউনিয়নের ধামাই বিল জলমহালের দখল নিয়ে তেরহাল আদর্শ মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি ও তেরহাল মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির লোকজনদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। তেরহাল আদর্শ মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির লোকজন ধামাই বিল জলমহালে দ্বিতীয় বছরে মৎস্য আহরণ কালে প্রতিপক্ষ তেরহাল মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির লোকজন বাঁধা দেয়।
বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারী) ভোরে তেরহাল মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সভাপতি আলতাব আলী সহ সমিতির লোকজন তেরহাল আদর্শ মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির খলা ঘরে হামলা চালায়। এসময় তেরহাল গ্রামের মাহমদ আলীর ছেলে মোশারফ মিয়া (৪০), মৃত আব্দুল বারির ছেলে নাজির আহমদ (২৪), সাহেব আলীর ছেলে আশরাফ আলী (৩০), আজিজুর রহমানের ছেলে লিটন মিয়া (৩৭) ও জুয়েল মিয়া(৩৫), আরজ আলীর ছেলে অজুদ মিয়া (২৮), আব্দুল আজিজের ছেলে লিমন মিয়া (২২), তালেব আলীর ছেলে দিলোয়ার হোসেন (২৩) আহত হন। আহতদের সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সকাল সাড়ে ৮ টায় আহতদের দেখতে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে যাওয়ার পথে তেরহাল মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির লোকজন আরেকবার তেরহাল আদর্শ মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির লোকজনের উপর হামলা করে। দক্ষিণ সুনামগঞ্জের নোয়াখালী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এসময় জয়নুদ্দিন (৬০) নামের এক ব্যক্তিকে এলোপাতারী মারপিট করে তারা। জয়নুদ্দিন উদ্দিন মাথায় আঘাত পান। গুরুতর আহত জয়নুদ্দিনকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত ডাক্তাররা তাক মৃত ঘোষণা করেন। নিহত জয়নুদ্দিন তেরহাল গ্রামের মৃত মছদ্দর আলীর ছেলে।
এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১০ জনকে সকালেই আটক করেছে পুলিশ।
সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হায়াতুন-নবী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। দোষীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।