বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের ঘৃণা করতে হবে-এমএ মান্নান

স্টাফ রিপোর্টার ও দ. সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছে তাদেরকে ঘৃণা করতে হবে। আধুনিক ও বিজ্ঞান মনস্ক হয়ে গড়ে ওঠতে হবে। চাঁদে সাঈদীকে দেখা গেছে, এগুলো বিশ্বাস করা যাবে না। মাথা কেটে নিয়ে যাবে, কেটে নিয়ে গেছে এমন গুজবে কান দেবেন না। কোনদিনই কোথাও সেতু নির্মাণের জন্য মাথা কেটে নেওয়া হয় নি। এসব বিষয় তোমাদের বুঝতে হবে, বাবা-মাকেও বুঝাতে হবে। মানুষ মঙ্গলে যাবার চেষ্টা করছে, এটি সত্য, কিন্তু চাঁদে অসম্ভব কিছু দেখা গেছে, এটি সত্য নয়।
শুক্রবার বিকালে সুনামগঞ্জ শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎজ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান দি অপটিমিস্ট কর্তৃক জেলার অস্বচ্ছল ও মেধাবী ৪৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে বৃত্তি বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, পড়াশুনা করে কেবল ডিসি, এসপি হবার স্বপ্ন দেখা নয়, ভালো মানুষ হতে হবে।
মন্ত্রী বলেন, পড়াশুনার ক্ষেত্র ক্রমশ বাড়ছে, এক সময় দেশে একটি বিশ্ববিদ্যালয় ছিল, এখন ১৫০ টি, মেডিকেল কলেজ ছিল ১ টি, এখন হয়েছে ১০০ টি, সুনামগঞ্জে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজের কাজ হচ্ছে, শান্তিগঞ্জে হচ্ছে টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট, সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাগজে-ফাইলে কাজ শুরু হয়েছে।
তিনি বলেন, সম্প্রতি দেশে ডেঙ্গু আতঙ্ক আছে। এটিও থাকবে না। কলেরা, আমাশয়, বসন্ত, ম্যালেরিয়া যেভাবে দূর হয়েছে, ডেঙ্গুও সেভাবে দূর হবে।
উন্নয়ন কাজে পেছন থেকে বিরোধিতা করা কিংবা অসহযোগিতা করার সমালোচনা করে তিনি বলেন, একটি বিশ্ববিদ্যালয় বা মেডিকেল কলেজ হওয়া মানে একটি আলাদা শহর গড়ে ওঠা, খোলা জায়গায় মূল সড়কের পাশেই এসব প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠে। যারা কিছুই করতে পারেন না, তারা স্থান কোথায় হবে, এই নিয়ে কথা ওঠান।
দি অপটিমিস্টস’এর জেলা পরিচালক মো. গোলাম কিবরিয়া’র সভাপতিত্বে এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন কো-অর্ডিনেটর সাংবাদিক ও আইনজীবী খলিল রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন-জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, সংগঠনের প্রকল্প পরিচালক শিক্ষাবিদ পরিমল কান্তি দে, বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী রুখেয়া বেগম ও অমিত বিশ্বাস বাঁধন।
শেষে বৃত্তিপ্রাপ্ত ৪৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে বৃত্তির চেক তুলে দেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের একটি করে ছাতা প্রদান করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ।
প্রসঙ্গত. ২০১৫ সাল থেকে জেলায় এই বৃত্তি চালু হয়েছে। ৬ মাস পর পর তাদের এই বৃত্তি দেওয়া হয়।
এদিকে শুক্রবার সকাল ১০টায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার শান্তিগঞ্জস্থ পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপির বাসভবনে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা মূলক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তিনি।
মন্ত্রী বলেন, ডেঙ্গু এখন মহামারী আকার ধারণ করেনি। আমরা একটু সচেতন হলে এই ডেঙ্গুকে প্রতিরোধ করতে পারি। বর্ষা মৌসুমে বাড়ির চারপাশ ও ঘর পরিষ্কার রাখলে এই ডেঙ্গু প্রতিরোধ করা যায়।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জসিম উদ্দিনের পরিচালনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিভিল সার্জন ডা. আশুতোষ দাশ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সফি উল্ল¬াহ, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হেকিম, সাধারণ স¤পাদক আতাউর রহমান, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইকবাল আহমদ, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হারুনুর রশীদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক নুর হোসেন, পাথারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুর রশিন আমিন, দরগাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান মনির উদ্দিন।
সভায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালামের অর্থায়নে উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৫টি করে মশক নিধন ¯েপ্র (এরোসল) বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।
অপরদিকে বেলা ১১টায় পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপির ঐচ্ছিক তহবিল হতে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান সহ ২১৬ জনকে নগদ ৫ লক্ষ ৮০ টাকার বিতরণ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি।
এ সময় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা অডিটোরিয়া নির্মাণ কাজ শেষ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে মন্ত্রী বলেন, দেশের ঠিকাদারী প্রথা বন্ধ করা প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। এই ঠিকাদারদের কারণে অনেক উন্নয়ন কাজ সময় মতো শেষ হচ্ছে না। টাকা নিয়ে বসে থাকেন তারা। তাই এই সিস্টেম থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।
মন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষের উন্নয়নের সরকার দিন রাত কাজ করে যাচ্ছে। আমরা হাওরাঞ্চলের উন্নয়নের ম্যাগা প্রকল্প হাতে নিয়েছি। এগুলো বাস্তবায়ন হলে, দেশের কোন মানুষ পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী থাকবে না। দেশের সর্বোচ্চ উন্নয়নের হাওয়া বইছে। এই হাওয়াকে অব্যাহত রাখতে হবে।
অনুষ্ঠানে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সফি উল্লাহ’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুন্নবী, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক নুর হোসেন, থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ চৌধুরী, জেলা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইকবাল আহমদ, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দুলন রাণী তালুকদার, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল হেকিম, সহ সভাপতি তহুর আলী, মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম, সাধারণ সম্পাদক মো. আতাউর রহমান,দরগাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান মো. মনির উদ্দিন,পশ্চিম বীরগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম, পাথারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. আমিনুর রশিদ, পূর্ব পাগলা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. রফিক খাঁন, আওয়ামী লীগ নেতা জিএম সাজ্জাদুর রহমান, আসাদুর রহমান আসাদ, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা তথ্য প্রযুক্তিলীগ সভাপতি মো. সহিদুল ইসলাম প্রমুখ।