বর্ণাঢ্য আয়োজনে সিলেটে রবীন্দ্রনাথ স্মরণ

সিলেট অফিস
১৯১৯ সালের ৫ নভেম্বর তিনদিনের জন্য সিলেট ভ্রমণে এসেছিলেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। এবছর কবিগুরুর সিলেট পরিভ্রমণের একশ’ বছর পূর্ণ হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে সিলেটজুড়ে ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে রবীন্দ্র স্মরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। একশ’ বছর পূর্তি পালনে ‘শ্রীহট্টে রবীন্দ্রনাথ: শতবর্ষে স্মরণোৎসব’ শিরোনামে তিনদিনব্যাপী আয়োজন শুরু হয়েছে মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) থেকে। এছাড়াও রবীন্দ্রস্মৃতিবাহী সিলেট মুরারীচাঁদ (এমসি) কলেজ, ব্রাহ্ম সমাজ, সিংহ বাড়ি ও মাছিমপুর মণিপুরী মন্দিরে পৃথক অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে।
শতবর্ষ পূর্তির প্রথমদিনে সিলেট সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে সকাল ১১টায় শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন ‘সিলেটে রবীন্দ্রনাথ: শতবর্ষ স্মরণোৎসব উদযাপন পর্ষদের’ আহবায়ক ও সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ও সদস্য সচিব সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।
কিন ব্রিজের নিচে ম্যুরাল উন্মোচনের মাধ্যমে শতবর্ষ স্মরণোৎসব উদযাপন পর্ষদের অনুষ্ঠানমালা ২য়পর্ব শুরু হয় বিকেল সাড়ে তিনটায়। এই ম্যুরাল ও অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবুল মুহিত। বিকাল ৪টা থেকে অর্ধশতাধিক শিল্পীদের পরিবেশনায় নৃত্য, আবৃত্তি ও সঙ্গীত পরিবেশন করা হয় রবীন্দ্রনাথ স্মরণোৎসবে। এছাড়াও এই অনুষ্ঠানে আছে একক পরিবেশনা ও পুরস্কার বিতরণী করা হয়।
এর আগে মঙ্গলবার সকাল সাতটায় শ্রীহট্ট ব্রাহ্মসমাজের আয়োজনে সুরমা নদীর চাঁদনীঘাটে রবীন্দ্রনাথের আগমনের ক্ষণ স্মরণে পুষ্প বর্ষণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। সকাল সাড়ে আটটায় বন্দরবাজার এলাকার ব্রাহ্ম মন্দিরে ‘শব্দে ছন্দে রবীন্দ্র স্মরণ’ শীর্ষক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ব্রাহ্ম মন্দিরে রবীন্দ্রনাথের প্রার্থনা সভায় অংশগ্রহণের সময়কালের আবহে স্তোত্র, গান ও নৃত্যাঞ্জলি পরিবেশিত হয়। এতে অংশ নেন বিভিন্ন সংগঠনের শিল্পীরা।
সন্ধ্যা ছয়টায় কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে শ্রীহট্ট ব্রাহ্ম সমাজের উদ্যোগে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়। আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। রবীন্দ্রনাথকে নিয়ে আলোচনা করেন দুই বাংলার দুই খ্যাতকীর্তি রবীন্দ্র গবেষক ভারতের গোহাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের প্রাক্তন ডিন ঊষারঞ্জন ভট্টাচার্য্য ও চট্টগ্রাাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক গোলাম মুস্তাফা।
সাংস্কৃতিক আয়োজনে ছিল প্রতীক এন্দ ও অনিমেষ বিজয় চৌধুরীর পরিচালনায় সঙ্গীতানুষ্ঠান, সিলেটের নৃত্যশৈলীর পরিবেশনায় নৃত্যনাট্য ‘চন্ডালিকা’ ও সুকান্ত গুপ্তের পরিচালনায় শ্রুতি আবৃত্তি বিভাগের পরিবেশনা। এছাড়া অনুষ্ঠানে কবি ও গবেষক মোস্তাক আহমাদ দীনের সম্পাদনায় সংকলন ‘পূর্বাপর’ এর মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিবৃন্দ।
ব্রাহ্ম সমাজের এসব অনুষ্ঠানমালা সফল ভাবে সম্পন্ন করার জন্য শ্রীহট্ট ব্রাহ্ম সমাজের পক্ষে সভাপতি বেদানন্দ ভট্টাচার্য্য ও সম্পাদক বিজয় কৃষ্ণ বিশ্বাস সকলকে ধন্যবাদ জানান।