বর্তমান প্রজন্মই আগামী দিনের দেশ গড়ার কারিগর

সুমন রায় ও মাহবুবুর রহমান
‘বিতর্ক মানেই যুক্তি-বিজ্ঞানে মুক্তি’ এমন স্লোগানে বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশন ও দৈনিক সমকালের যৌথ উদ্যোগে জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব-২০১৮’এর সুনামগঞ্জ জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগিতা বুধবার সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিযোগিতায় যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি সতীশ চন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। শেষে ড্র’এর মাধ্যমে পরের পর্বের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য মনোনীত হয় সরকারি সতীশ চন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।
প্রতিযোগিতা শেষে সুনামগঞ্জ সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যুগ্মভাবে চ্যাম্পিয়ন জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি সতীশ চন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিতার্কিক দলের হাতে ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম। এসময় চূড়ান্ত পর্বের শ্রেষ্ঠ বক্তা জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দলনেতা ঐশ্বরী তালুকদার’এর হাতে ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।
পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম বলেন,‘বর্তমান প্রজন্মই আগামী দিনের দেশ গড়ার কারিগর হবে। এই প্রজন্ম বিজ্ঞান মনস্ক হিসাবে গড়ে ওঠলে পৃথিবীর যেকোন লড়াইয়ে টিকে থাকতে পারবে। সুনামগঞ্জ অনেক গুণী মানুষের জন্ম দিয়েছে। রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে কর্মরত রয়েছেন সুনামগঞ্জের কৃতী সন্তানরা। আজকে যারা বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশ নিলো তারা নিশ্চয়ই সেইসব কৃতী সন্তানদের অনুসরণ করবে। সুনামগঞ্জের সুনাম রয়েছে, এখানে যেমন মরমী কবি হাসন রাজা, রাধারমণ, বাউল শাহ্ আব্দুল করিম’র জন্মস্থান। বাঙালি জাতির মহান মুক্তিযুদ্ধেও এই অঞ্চলের সূর্য সন্তানেরা বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন। দেশপ্রেমিক সেসব মানুষদেরও এই প্রজন্ম অনুসরণ করবে বলেই প্রত্যাশা করছি আমরা।’
সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুবুল হাছান শাহীনের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- সুনামগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের সহযোগি অধ্যাপক শাহাদাত হোসেন, কবি ইকবাল কাগজী, সমকালের জেলা প্রতিনিধি পঙ্কজ দে, শিক্ষক রওশনআরা খানম, সাংবাদিক খলিল রহমান প্রমুখ।
বুধবার সকাল থেকে সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ে শুরু হওয়া এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়- সতীশ চন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়, সুনামগঞ্জ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, এইচএমপি উচ্চ বিদ্যালয়, আমবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়, পাগলা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ও আলহাজ্ব জমিরুন নূর উচ্চ বিদ্যালয়।
প্রতিযোগিতার বিভিন্ন পর্বে বিচারক হিসাবে অংশ নেন- সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক একে আজাদ, জেলা উদীচীর সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, আমবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক দীপংকর চৌধুরী, সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক অনুপ নারায়ণ তালুকদার, জামালগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক চিত্ত রঞ্জন দাস, সরকারি সতীশ চন্দ্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক সুবল দাস, সুনামগঞ্জ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদরুজ্জামান ও সুনামগঞ্জ জেলা সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সাধারণ সম্পাদক সাদিকুর রহমান সনি। সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন- সুহৃদ সুমন রায়, আলাউর রহমান, আরিফুর রহমান ও তুষার তালুকদার।
দিনব্যাপি প্রতিযোগিতা সম্পন্ন করতে শ্রম দিয়েছেন সমকাল সুহৃদ সমাবেশের দায়িত্বশীলদের মধ্যে আহমেদ মামুন, তুষার তালুকদার, পুলক রাজ, ইফতেখারুজ্জামন, আলামিন, মেহেদী হাসান হৃদয়, মাহফুজ আলম, সাব্বির আহমেদ, আরিফুল হক খান, বশির খান, রূপক দাস ও আরিফুর রহমান।