বসন্তপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়- শিক্ষক সংকট পাঠদান ব্যাহত

স্বপন কুমার বর্মন, বিশ্বম্ভরপুর
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার বসন্তপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দীর্ঘ দিন ধরে শিক্ষক সংকটের দরুণ পাঠদান ব্যাহত হচেছ। দরিদ্র অভিভাবকগণ নিয়োগ প্রাপ্ত প্যারা শিক্ষকের বেতন না দিতে পারায় শিক্ষকদের বিদ্যালয়ে ধরে রাখা যায় না। কিছুদিন পরই বিদায় নেন শিক্ষকরা।
জানা যায়, উপজেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে বসন্তপুর ও ভাদেরটেক এই দুটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ম শ্রেণি থেকে ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস কয়েক বছর আগে চালু করা হয়েছে। তন্মধ্যে বসন্তপুর  প্রাথমিক বিদ্যালয়টি বেশি অবহেলিত। বিদ্যালয়ে ১ম শ্রেণি থেকে ৮ম শ্রেণি এবং শিশু শ্রেণিসহ  মোট ৯ টি ক্লাসে ৪৮৯ জন শিক্ষার্থীর জন্য  রয়েছেন মাত্র ৫ জন শিক্ষক। ১ম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত ৭টি পদ রাখা হয়েছে। তন্মধ্যে ৬জনের নিয়োগ থাকলেও ৫জন কর্মরত রয়েছেন। ৬ষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণির জন্য কোন শিক্ষক বর্তমানে বসন্তপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নেই। ফলে ম্যানেজিং কমিটি ও অভিভাবকগণকে  অপারগ হয়ে ২জন প্যারা শিক্ষক নিয়োগ দিতে হয়েছে,।
অভিভাবকদের আর্থিক অস্বচছলতার দরুন প্যারাশিক্ষকদের বিদায় দেওয়া হয়েছে । প্রধান শিক্ষকের পদটিও দীর্ঘদিন ধরে শূন্য  থাকায় একজন সহকারি দায়িত্ব পালন করে আসছেন।
ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক  হেলাল উদ্দিন জানান, ‘বিদ্যালয়ে ৭ জন শিক্ষকের পদ থাকলেও ৬ জনের নিয়োগ রয়েছে, ১ জন মেডিকেল ছুটিতে আছেন, কর্মরত আছি আমরা ৫ জন শিক্ষক।’
তিনি জানান, ২টি শিফটে  ৯টি ক্লাস হয়, ১ম শিফটে ৭ টি ক্লাস,ও ২য় শিফটে ৬টি ক্লাস নিতে গিয়ে আমাদের খুবই কষ্ট হয়।
বিদ্যালয়ের  ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এ টি এম শফিকুল ইসলাম জানান, ‘বিদ্যালয়ের শিক্ষক সংকটের দরুন প্যারা শিক্ষক রেখেছিলাম। কিন্তু বেতন দিতে না পারায় বিদায় করে দিয়েছি।
তিনি আরো জানান, ওয়াশব্লক ব্যবস্থা চালু থাকলেও বিদ্যুতের ওয়ারিং না থাকায় পানি সংকট রয়েছে বিদ্যালয়টিতে।



আরো খবর