বিশ্বকে চমকে দেয়ার অপেক্ষায় রাশিয়া

সু.খবর ডেস্ক
জার্মানি না আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল না স্পেন, ফ্রান্স না পর্তুগাল, না অন্য কোনো দল? বিশ্বকাপ ফুটবলে নতুন মুকুট পরবে কারা? রাশিয়াতে সেই উত্তর মিলবে আগামী ১৫ জুলাই। তবে, শিরোপার লড়াই শুরু হয়ে যাবে আজ। বৃহস্পতিবার রাশিয়া ও সৌদি আরবের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ফিফা বিশ্বকাপের ২১তম আসর। রাশিয়া বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত নয়টায়।
উদ্বোধনী ম্যাচ শুরু হওয়ার আগে দর্শকদের জন্য আরেক চমক থাকছে। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী ম্যাচ শুরুর আগে অনুষ্ঠিত হবে জমকালো এক উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাতটায় শুরু হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। বাংলাদেশ থেকে এবার বিশ্বকাপের খেলা উপভোগ করা যাবে বিটিভি, মাছরাঙা টিভি ও নাগরিক টিভির পর্দায়।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ‘লাইভ ইট আপ’ শিরোনামের থিম সংটি গেয়ে শোনাবেন নিকি জ্যাম, উইল স্মিথ ও ইরা ইস্ত্রোফি। আর নৃত্যের ছন্দে রাশিয়ার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য তুলে ধরবেন নৃত্যশিল্পীরা। এছাড়া মস্কোর রেড স্কোয়ারে আরেকটি কনসার্ট অনুষ্ঠিত হবে। এখানে প্ল্যাসিডো ডোমিঙ্গুয়েজ ও জুয়ান দিয়েগো ফ্লোর্সের মতো তারকারা পারফর্ম করবেন।
বিশ্বকাপে অংশ নিবে ৩২টি দল। ১১টি শহরের ১২টি ভেন্যুতে মোট ম্যাচ হবে ৬৪টি। উদ্বোধী ও ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে। এই স্টেডিয়ামে দর্শক ধারণক্ষমতা ৮০ হাজার।
বিশ্বকাপ সামনে রেখে রাশিয়া স্বাগতিক ভেন্যুগুলোকে নতুন রূপে সাজিয়ে তুলেছে। তাছাড়া রাশিয়ার শহগুলোও সেজেছে নতুন রূপে। গণমাধ্যমের খবরে এখন পর্যন্ত যতোটুকু জানা গেছে তাতে রাশিয়া এবার বিশ্বকে চমকে দিতে চলেছে। বিশ্ববাসীকে জমকালো এক বিশ্বকাপ উপহার দেয়ার জন্য প্রস্তুত রাশিয়া।
রাশিয়ায় যে শহরগুলোতে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে সেই সব শহরে এখন বিদেশি ফুটবলপ্রেমীদের আনাগোনা। পছন্দের দলকে মাঠে বসে সমর্থন দিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ফুটবল ভক্তরা এখন যাচ্ছেন রাশিয়াতে। বিশ্বকাপে অংশগ্রণকারী দলগুলোর প্রায় সব দলই ইতোমধ্যে রাশিয়াতে পৌঁছে গেছে।
এখনই ফুটবলপ্রেমীরা পছন্দের দলের জার্সি গায়ে দিয়ে ও পতাকা হাতে নিয়ে রাশিয়ার শহরগুলোতে ঘোরাফুরি করছে। মস্কো স্কয়ারে ফুটবলপ্রেমীদের ভিড় বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সেই সাথে নিরাপত্তার দিক থেকেও সতর্ক রাশিয়া।
বিশ্বকাপের ৩২টি দল হলো রাশিয়া, জার্মানি, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, কলম্বিয়া, পানামা, পেরু, মেক্সিকো, উরুগুয়ে, কোস্টারিকা, সেনেগাল, মিশর, তিউনিশিয়া, নাইজেরিয়া, মরক্কো, অস্ট্রেলিয়া, ইরান, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, সৌদি আরব, ইংল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড, পোল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া, সার্বিয়া, পর্তুগাল, ফ্রান্স, স্পেন, আইসল্যান্ড, সুইডেন, ডেনমার্ক, বেলজিয়াম।
জার্মানি এবার ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসাবে বিশ্বকাপে অংশ নিবে। ২০১৪ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল জার্মানি। ইউপোপের এই দলটি যদি এবার শিরোপা ধরে রাখতে পারে তাহলে তারা দ্বিতীয় দল হিসাবে বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয়বার শিরোপা ঘরে তুলবে। আর বিশ্বকাপে এটি হবে তাদের পঞ্চম শিরোপা। বিশ্বকাপে এবার ফেভারিট ভাবা হচ্ছে জার্মানি, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, ফ্রান্স ও স্পেনের মতো শক্তিশালী দলকে। এখন দেখার শেষ পর্যন্ত কারা শিরোপা নিজেদের করে নিতে পারে।
বিশ্বকাপে গত ২০ আসরের মধ্যে সর্বোচ্চ পাঁচবার শিরোপা জিতেছে ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। ইউরোপের দুই দল জার্মানি ও ইতালি জিতেছে চারবার করে। এছাড়া আর্জেন্টিনা দুইবার, উরুগুয়ে দুইবার, ফ্রান্স একবার, ইংল্যান্ড একবার ও স্পেন একবার করে শিরোপা ঘরে তুলেছে।
এবারের বিশ্বকাপে মোট প্রাইজ মানি ৪০০ মিলিয়ন ডলার। অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দলই টুর্নামেন্টে তাদের অবস্থান অনুযায়ী প্রাইজ মানি পাবে। এর মধ্যে চ্যাম্পিয়ন দল প্রাইজ মানি হিসাবে পাবে ৩৮ মিলিয়ন ডলার তথা তিন কোটি ৮০ লাখ ডলার। আর রানার আপ দল পাবে ২৮ মিলিয়ন ডলার তথা দুই কোটি ৮০ লাখ ডলার। তৃতীয় স্থান অর্জনকারী দল পাবে ২৪ মিলিয়ন ডলার। চতুর্থ স্থান অর্জনকারী দল পাবে ২২ মিলিয়ন ডলার।
যারা কোয়ার্টার ফাইনাল পর্ব থেকে বিদায় নিবে তারা পাবে ১৬ মিলিয়ন ডলার করে। আর দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নেয়া দলগুলো পাবে ১২ মিলিয়ন ডলার করে। গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয়া প্রতিটি দল পাবে আট মিলিয়ন ডলার করে।