বিশ্বম্ভরপুরে নিখোঁজের ৫দিন পর গৃহবধুর মরদেহ ঊদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার চিনাকান্দি গ্রাম পাশর্^বর্তী হাওর থেকে গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত ১৯ মার্চ রাত পাশের বাড়ী থেকে টেলিভিশন দেখে নিজের ঘরে ফেরার সময় নিখোঁজ হয়েছিলেন ওই গৃহবদু। নিহত গৃহবধুর নাম ললিতা বেগম (২৮)। তিনি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ধনপুর ইউনিয়নের চিনাকান্দি গ্রামের মরম আলীর স্ত্রী। এ ঘটনায় ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার সকালে বিশ^ম্ভরপুর উপজেলার চিনাকান্দি গ্রামের পাশের হাওরের একটি ধান খেতে ললিতা বেগমের লাশ দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেন। ঘটনাস্থলে এসে লাশ ঊদ্ধার করে। গত ১৯ মার্চ রাত ১১ টায় ওই গৃহবধু পাশের বাড়ী থেকে টেলিভিশন দেখে নিজ ঘরে ফেরার সময় নিখোঁজ হন ললিতা বেগম। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী বাদী হয়ে নিখোঁজের একদিন পর (গত ২০ মার্চ) ৫ জনকে অভিযুক্ত করে বিশ্বম্ভরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
বিশ্বম্ভরপুর থানার ওসি মুাহবুবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ললিতা বেগম নিখোঁজের ঘটনায় ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। মামলা তদন্ত চলছে। যারাই জড়িত রয়েছে, তাদের আইনের আওতায় আন হবে।