ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা- দোয়ারায় মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি
ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা করায় দোয়ারাবাজারে এক মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। জমি সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে দোয়ারাবাজার উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের চকবাজারে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়। অভিযোগ কারী এরুয়াখাই গ্রামের মৃত. আয়না মিয়ার পুত্র মো. নজির আহমদ।
জানা যায়, গত ৩০ আগস্ট বৃহস্পতিবার রাতে মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিছ আলী ও মুক্তিযোদ্ধার দুই সন্তান লাঠিসোটা নিয়ে চকবাজারে নজির আহমদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভূসিমালের দোকানে এসে হামলা করেন। দোকানের মালামাল নষ্ট এবং ভাংচুর করেন। এসময় বাজারে উপস্থিত জনতা এসে তাদের প্রতিহত করেন। পরে বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি বিষয়টি মিমাংসা করার চেষ্টা করেন। চক বাজারের বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. মকবুল আহমেদ জানান, নজির আহমেদ ও মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিছ আলীর মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরে জমি জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। গত ৩০ আগস্ট রাতে হঠাৎ করে বাজারে এসে তারা নজিরের দোকানে হামলা করে। আমরা এসময় উপস্থিত হয়ে উভয়ের মধ্যে ঝগড়ার মিমাংসার চেষ্টা করি। কিন্তু মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী আমাদের ডাকে কোন প্রকার সায় না দিয়ে মামলা করেন।
বাজারের কাপড় ব্যাবসায়ী শেফালীগাঁও গ্রামের আব্দুল মজিদ জানান, মুক্তিযোদ্ধার এক ছেলে ঢাকায় থাকে। সে ঈদের ছুটিতে বাড়িতে আসার পর থেকেই একেরপর এক ঝগড়া করে আসছে বাবার দাপট দেখিয়ে। এমনকি এলাকার মানুষ তাদের আচরণে অতিষ্ঠ। কিছু হলেই মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিছ আলী মামলা দিয়ে হয়রানি করেন।
ব্যবসায়ী নজির আহমদ জানান, গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮ টার সময় হঠাৎ মুক্তিযোদ্ধা ও তার ছেলে এসে আমার দোকানে হামলা করে। এতে আমার দোকানের অনেক জিনিস নষ্ট হয়েছে।
মুক্তিযোদ্ধা মো. ইদ্রিছ আলী বলেন, ‘আমরা হামলা করিনাই আমরা বাজারে যাবার পর তারা আমাদের উপর হামলা করে।’
দোয়ারাবাজার থানার ওসি সুশীল রঞ্জন দাস বলেন, ‘উভয়ের দায়ের করা দুটি অভিযোগ পেয়েছি। এপর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধার দায়ের করা মামলার প্রাথমিক তদন্ত করা হয়েছে। নজির আহমদের মামলার তদন্ত করা হয়নি তদন্ত শেষে সত্যতা যাচাই করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’