ভারসাম্যপূর্ণ ও সাম্যাবস্থা বজায় থাকতে সহায়তা করে গণমাধ্যম

তাহিরপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে আমরা ধন্যবাদ জানাই এজন্য যে, তিনি চলমান বাঁধ নির্মাণ কাজের ত্রæটি বিচ্যুতি নিয়ে সংবাদ প্রকাশের জন্য গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি আহŸান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন এরকম সংবাদ প্রকাশের ফলে পিআইসি সঠিক মানে কাজ শেষ করতে চাপে থাকবে। রবিবার তাঁর কার্যালয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এমন বক্তব্য রেখেছেন। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের ফলে যে শুধু পিআইসিই চাপে থাকবে তাই নয় বরং কর্তৃপক্ষও কাজের মান নিয়ে সঠিক সংবাদ অবগত হয়ে তড়িৎ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারবেন। গণমাধ্যমকে সমাজের ওয়াচডগ বলে উল্লেখ করা হয়। দায়িত্বশীল গণমাধ্যম সর্বদাই ঘটনাগুলোকে নির্মোহ ও নিরপেক্ষভাবে পর্যবেক্ষণে রাখে এবং সঠিক তথ্য গণমাধ্যমের মাধ্যমে মানুষকে জ্ঞাত করে। এভাবে সমাজে একটি ভারসাম্যপূর্ণ সাম্যাবস্থা বজায় থাকতে সহায়তা করে গণমাধ্যম। এর বিপরীতে গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে অভিযোগেরও অন্ত নেই। সম্প্রতি কিছু গণমাধ্যমের দায়িত্বহীনতা, পক্ষপাতিত্ব, অর্ধসত্য-অসত্য-অতিরঞ্জিত খবর প্রকাশের প্রবণতা লক্ষণীয়। সমাজের অপরাপর অংশ যেভাবে নানা নেতিবাচক প্রভাবে দুষ্ট হয়েছে গণমাধ্যমের একাংশও সেই ক্ষতে আক্রান্ত, এতে সন্দেহের অবকাশ নেই। পাঠক সহজেই বুঝতে পারেন এগুলো। তাই ওইসব উদ্দেশ্যপ্রবণ সংবাদের উপর সাধারণ পাঠকদের আস্থা একেবারেই কম। কিন্তু দায়িত্বশীল গণমাধ্যম কখনও সত্য থেকে বিচ্যুত হয় না, সর্বাবস্থায় সত্য প্রকাশে নির্ভীক থাকে। দায়িত্বশীল এই সংবাদমাধ্যমগুলোই একটি স্থিতিশীল সমাজে ওয়াচডগের ভূমিকা পালন করে। বলাবাহুল্য তাহিপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসারের গণমাধ্যমের প্রতি যে প্রত্যাশা সেটি পূরণ করার দায়িত্ব দায়িত্বশীল গণমাধ্যমগুলোর উপরই বর্তায়। তারা যদি নির্মোহভাবে প্রকৃত অবস্থা প্রকাশ করেন তাহলেই কেবল ওই কর্মকর্তার প্রত্যাশা পূরণ হতে পারে।
হাওরের একমাত্র কৃষিজাত পণ্য বোরো ধান উৎপাদন খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই ফসলকে যাবতীয় ঝুঁকি থেকে সম্ভাব্য সব উপায়ে রক্ষা করাই সকলের উদ্দেশ্য। সরকারও এই জায়গায় আন্তরিকভাবে সব ধরনের সহযোগিতা জুগিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু অতীতে আমরা দেখেছি, হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধের নামে আসা বরাদ্দ নির্বিচারে লুটপাট করা হয়েছে। সেসময় গণমাধ্যম এর বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিল। গণমাধ্যমের এই বলিষ্ঠতার সাথে নাগরিক ও কৃষক সমাজের অভূতপূর্ব ঐক্যের কারণে লুঠপাটের অন্যতম ব্যবস্থা ঠিকাদারি প্রথার বিলোপ সাধন করা হয় বাঁধ নির্মাণ কাজে। এখন প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে সর্বত্র বাঁধের কাজ হচ্ছে। পিআইসি গঠনের নীতিমালা কৃষকবান্ধব। কিন্তু এবছর এই নীতিমালার ব্যত্যয় ঘটার অনেক সংবাদ ইতোমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে অধিক প্রকল্প গ্রহণ করে সরকারি বরাদ্দের অপচয়, অপ্রয়োজনীয় প্রকল্প গ্রহণ, পিআইসি গঠনে রাজনৈতিক-প্রভাবশালীদের মদদ; প্রভৃতি অন্যতম। হাওর এলাকার অর্থনীতি ও জীবন-জীবিকার প্রধান অবলম্বন বোরো ফসলের বিষয়ে অধিকতর স্পর্শকাতরতার জন্য গণমাধ্যম ফলাও করে এসব সংবাদাদি প্রকাশ করে চলেছে। যদি গণমাধ্যমে এসব সংবাদ প্রচারিত না হত তাহলে কী অবস্থা হত তা সহজেই অনুমেয়। এ কারণে দায়িত্বশীল গণমাধ্যম সর্বদাই স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীর কোপানলে থাকে। গণমাধ্যমের এই থ্যাংকলেস জব তথা গোষ্ঠী বিশেষের চক্ষুশূল হয়ে উঠার বাস্তবতার মধ্যেই কিছুটা হলেও সাধারণ কৃষকের স্বার্থ রক্ষিত হচ্ছে। গণমাধ্যমের তৃপ্তি ও সার্থকতার জায়গা এইটুকুই।
তাহিরপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসার যেভাবে দায়িত্বশীল গণমাধ্যমের ভূমিকার বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করেছেন, আমরা কামনা করব সকলেই যেন অনুরূপ জায়গায়ই অবস্থান নেন। আসলে আমরা সকলে মিলেই মানুষের ভাল করতে চাই। প্রশাসন, রাজনৈতিক দল, নাগরিক সমাজ, সাধারণ মানুষ ও গণমাধ্যমের এই ঐক্যের জায়গাটিকে সমুন্নত রাখতে হবে। তাহিরপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কথা এজন্যই আমাদের আশাবাদী করে।