‘ভাসানপানি আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক ছিলেন তিনি’

পুলক রাজ
গণমুখি শিক্ষা প্রসারের অগ্রদূত, ভাসান পানি আন্দোলনের নেতা মানিক লাল রায় স্মরণে সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় শহরের জগৎজ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। শোকসভা আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক রতœাংকুর দাসের সভাপতিত্বে, সদস্য সচিব জিল্লুল হক ও প্রথমআলোর নিজস্ব প্রতিবেদক উজ্জ্বল মেহেদীর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ ও সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ্, নারী নেত্রী শীলা রায়, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ই ইউ শহিদুল ইসলাম শাহিন, মুক্তিযোদ্ধা আইনজীবী বজলুল মজিদ চৌধুরী, কৃষক সংগ্রাম সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান কবীর, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাড. শহীদুজ্জামান চৌধুরী, সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাড. সেলিম হোসেন, গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির নেতা অ্যাড. রুহুল তুহিন, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি অ্যাড. বুরহান উদ্দিন দোলন, শিক্ষক সাজাউর রহমান, জেলা উদীচীর সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম, আবুসাদাত আহমদ টিটু, প্রভাষক রাজেশ কান্তি দাস, সিলেট জেলা ছাত্রদল নেতা এম এ মোতাল্লিব, মানিক লাল রায়ের ছেলে গান্দিব জ্ঞানাকুর প্রমুখ।
বক্তারা বলেন,‘শিক্ষকতার পাশাপাশি মানিক লাল রায় ছিলেন একজন বামপন্থী নেতা, বঞ্চিত মানুষের নেতা। তিনি ১৯৭১ সালে কমিউনিস্ট পার্টি, ন্যাপ, ছাত্র ইউনিয়নের লোকদের নিয়ে বিশেষ গেরিলা ও মুক্তিযোদ্ধা বাহিনীতে যোগ দিয়ে ট্রেনিং নেন আসামের তেজপুরে। দেশ স্বাধীনের পর ১৯৭২ সালে সুনামগঞ্জ কলেজ থেকে আই.এ পাশ করেন। ১৯৭৪ সালে একই কলেজ থেকে তিনি নিয়মিত পরীক্ষার্থী হিসাবে বি.এ পাশ করে আলোড়ন সৃষ্টি করেন। ১৯৮৯ সালে কৃষক সংগ্রাম সমিতি গড়ে তোলেন। তিনি ছিলেন ভাসানপানি আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক। সভার শুরুতে মানিক লাল রায় স্মরণে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
#