ভুলেক্রমে পাঠানো প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার টাকা ফেরত দিলেন ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার

স্টাফ রিপোর্টার
দোয়ারাবাজার উপজেলার সদর ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির (ফেয়ারপ্রাইজের) নামের তালিকায় নিজের নামসহ পরিবারের ১২ জনের তালিকাভূক্ত করে আলোচনায় ছিলেন ইউপি সদস্য তাজির উদ্দিন। গত ১২ মে ‘১০ টাকার চাল কেনার তালিকায় ইউপি সদস্যের পরিবারের ১১ নাম’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়েছিল। সংবাদের প্রকাশের পর টনক নড়েছিল উপজেলা প্রশাসনের।
অথচ ঘটনার কিছুদিন পরই করোনা ভাইরাস মহামারী মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার ২৫০০ টাকা ফেরত দিয়ে নজির সৃষ্টি করলেন একই এলাকার করোনা দুর্যোগের স্বেচ্ছাসেবক উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন। মঙ্গলবার দুপুর ২ টায় স্থানীয় সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে সেই টাকা ফেরত পাঠান তিনি।
দেলোয়ার হোসেন দোয়ারাবাজার উপজেলা সদর ইউনিয়নের নৈনগাঁও গ্রামের বাসিন্দা। তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও দোয়ারাবাজার সরকারি ডিগ্রি কলেজের আহ্বায়ক। ভুলক্রমে তার মোবাইল ফোনে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার ২ হাজার ৫৩৬ টাকা ২৬ পয়সা পাঠানো হয়েছিল। ঈদের আগের দিন ২৫ মে রাত ১২ টা ৩৮ মিনিটে নিজের মোবাইল ফোনে এই টাকা পেয়েছিলেন তিনি। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করেন। নানাচেষ্টা করেও তার মোবাইল নাম্বার কোথাও অন্তর্ভুক্ত হওয়ার খোঁজ পাননি। সেই টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য সোমবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউসের কাছে ইমেইল পাঠান দেলোয়ার হোসেন। গতকাল মঙ্গলবার সকালে মূখ্য সচিবের নির্দেশনায় অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব সাইফুল ইসলামের সহযোগিতায় দোয়ারাবাজার সোনালী ব্যাংকে ২৫০০ টাকা জমা দেন তিনি।
উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন বলেন,‘ঈদের আগের দিন গভীর রাতে ভুল করে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার টাকা আমার মোবাইলে আসে। খোঁজাখুঁজি করে কোথাও আমার মোবাইল নাম্বার অন্তর্ভুক্তির বিষয়টি জানতে পারিনি। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করি। টাকা ফেরত পাঠানোর জন্য সোমবার রাতে আমি প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব স্যারকে ইমেইল করি। এরপর মঙ্গলবার সকালে অর্থমন্ত্রণালয়ের সাইফুল ইসলাম স্যার আমার সাথে যোগাযোগ করেন এবং টাকা জমা দেয়ার জন্য একটি কোড নাম্বার দেন। আমি দুপুরে সোনালী ব্যাংকে টাকা জমা দেই।
টাকা জমা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সোনালী ব্যাংক দোয়ারাবাজার শাখার ব্যবস্থাপক বিধু ভুষন দাস ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোনিয়া সুলতানা।
দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোনিয়া সুলতানা বলেন,‘ দেলোয়ার হোসেন ছেলেটি ভাল। সে করোনা ভাইরাস দুর্যোগ মোকাবিলা টিমের একজন স্বেচ্ছাসেবক। ভুলক্রমে তার মোবাইলে পাঠানো প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তার টাকাগুলো মঙ্গলবার সোনালী ব্যাংকে জমা দিয়েছে সে।’