ভূমি ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা

স্টাফ রিপোর্টার
হাওর এলাকার টেকসই ভূমি ব্যবস্থাপনা (এস.এল.এম) প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে ৫ দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষে রবিবার দিনব্যাপী সুনামগঞ্জের বুড়িস্থল এলাকায় বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বীনা)’র সম্মেলন কক্ষে যাচাই-বাছাই বিষয়ে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।
প্রধান অতিথি হিসাবে প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর,
সরেজমিন উইং এর পরিচালক চন্ডীদাস কুন্ডু। প্রধান অতিথির বক্তব্যে চন্ডীদাস কুন্ডু বলেন,‘সময়ের সাথে কৃষি ও নানাবিধ উন্নয়ন কর্মকান্ডের কারণে ভূমির উপর চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ভূমির উৎপাদন ক্ষমতা হ্রাস, জৈব পদার্থের ঘাটতি, মাটির বৈশিষ্ট্য ও বৈশ্বিক জলবায়ূর পরিবর্তনের কারণে ফসল মওসুমে বন্যা, খরা, প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) ও ভূমি অবক্ষয় নিরপেক্ষতা (এলডিএন) অর্জন দুরুহ হয়ে যাচ্ছে। এরই প্রেক্ষাপটে ইতোমধ্যে অত্র এলাকায় বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক উদ্ভাবিত ও অনুমোদিত প্রযুক্তি সমূহ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মাধ্যমে কৃষক পর্যায়ে সম্প্রসারণ ও জনপ্রিয় করা হচ্ছে। যাতে উৎপাদন বৃদ্ধি ও নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত হয়।’
কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেট অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক শ্রীনিবাস দেবনাথ। প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন খামারবাড়ি ঢাকার উপ-পরিচালক, ডিএই ও ফেকাল পারসোন ড. রাধেশ্যাম সরকার। প্রকল্পের সমন্বয়ক পরিবেশ অধিদপ্তর ও ডব্লিউ.ও.সি.এ.টি-টুলস্ বিশেষজ্ঞ জালাল উদ্দিন মো. শোয়েব ডাটা সংগ্রহ ও ডব্লিউ.ও.সি.এ.টি ওয়েব সাইটে আপলোড বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন। প্রশিক্ষণ কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. সফর উদ্দিন।
প্রশিক্ষণ কর্মশালায় মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন সিলেটের মৃত্তিকা সম্পদ ইন্সস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মেহেদী হাসান, বিএডিসি’র সহকারী প্রকৌশলী খালেকুজ্জামান, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা কৃষি অফিসার দীপক কুমার দাস, জামালগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার আজিজুল হক, বিনা’র বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম, সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সীমা রানী বিশ্বাস, দৈনিক আমাদেরসময় জেলা প্রতিনিধি বিন্দু তালুকদার। প্রশিক্ষণে জেলার সকল উপজেলার কৃষি অফিসারসহ মোট ৪০ জন বিশেষজ্ঞ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।