ভ্রাম্যমাণ আদালতের খবর পেয়ে পালিয়ে গেছে শহিদ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সংশ্লিষ্টরা

স্টাফ রিপোর্টার
শহরের বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাহুল চন্দ সোমবার দুপুরে এই অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানের খবর পেয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমোদন ছাড়াই কার্যক্রম চালানো শহিদ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সংশ্লিষ্টরা পালিয়ে যায়। জানা গেছে নিয়মানুযায়ী এই ডায়াগনস্টিক সেন্টারের অবকাঠামো ও অনুমোদন নেই। এর আগেও ভ্রাম্যমাণ আদালত এই ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা করেছিল এবং আরেকবার ভ্রাম্যমাণ আদালত ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে দুই বছরের দ- দিয়েছিল পরিচালক শহিদুল ইসলামকে।
এদিকে অভিযানে অন্যস্থানে প্রায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক রাহুল চন্দ বলেন, শহরের কয়েকটি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালিয়ে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অভিযানের খবর পেয়ে শহিদ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সংশ্লিষ্টরা পালিয়ে গেছেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।