মতিউর রহমানের সাথে বিশ্বম্ভরপুরের নেতাকর্মীদের মতবিনিময়

স্টাফ রিপোর্টার
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সুনামগঞ্জ ৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মতিউর রহমানের সাথে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা ও সলুকাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার রাতে সুনামগঞ্জ শহরে মতিউর রহমানের হাজীপাড়ায় বাসায় এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা ও সলুকাবাদ ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি অ্যাড. শফিকুল ইসলাম, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মরম আলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোবারক আলী, ধনপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কালাম, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা আ.লীগের সহ প্রচার সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ফুল মিয়া, সলুকাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সফর আলী, সাধারণ সম্পাদক এখলাছুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, বাদল মিয়া, কোষাধ্যক্ষ আনিসুর রহমান, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সলুকাবাদ ইউপি সদস্য আতাউর রহমান, আইন বিষয়ক সম্পাদক ইউপি সদস্য শাহজাহান মিয়া, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সবুজ, ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক রোকন উদ্দিন, সলুকাবাদ ইউপির ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ফয়জুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন, ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল বারী, সাধারণ সম্পাদক আ. হান্নান, ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল হক, সাধারণ সম্পাদক জয়নাল হাজারী, ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ আব্দুল কাদির, ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক খলিলুর রহমান সমীর প্রমুখ।
সভায় সকল ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক সহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
সভায় উপস্থিত আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলেন,‘ আগামী জাতীয় নির্বাচনে আমরা মতিউর রহমানকে সুনামগঞ্জ ৪ আসনে সংসদ সদস্য হিসাবে দেখতে চাই। আমরা আর লাঙ্গলে ভোট দিতে চাই না, আমরা আমাদের দলের প্রার্থী চাই। আমরা নৌকা প্রতীকে মতিউর রহমানের সাথে নির্বাচন করতে চাই। ’
এ সময় মতিউর রহমান বলেন,‘দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই আওয়ামী লীগের প্রাণ। তৃণমূলের কর্মীরাই আমার শক্তি। আমি যতদিন এমপি ছিলাম ততদিন আমি সুনামগঞ্জের মানুষের জন্য কাজ করেছি, উন্নয়ন করেছি। আমি জাতীয় সংসদে সুরমা নদীর উপর নির্মিত আব্দুজ জহুর সেতুর অর্থ বরাদ্দের জন্য পদত্যাগ করার কথা পর্যন্ত বলেছি। আমি সবসময়ই জনগনের পাশে ছিলাম, আমৃত্যু থাকব। নেত্রী আমাকে মনোনয়ন দিলে আগামীতে সংসদ নির্বাচন করতে চাই, নির্বাচনের পূর্ণপ্রস্তুতি রয়েছে আমার।’