মাইজবাড়ি গ্রামের সড়কের বেহাল অবস্থা- দ্রুত সংস্কারের দাবি স্থানীয়দের

আকরাম উদ্দিন
সদর উপজেলার কুরবাননগর ইউনিয়নের মাইজবাড়ি গ্রামের মুল সড়কের বেহাল অবস্থা। এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন বিভিন্ন স্থানের মানুষসহ যানবাহন চলাচল করে থাকে। দীর্ঘদিন যাবত সড়কের সংস্কার কাজ না হওয়ায় মানুষের ভোগান্তি বেড়েই চলেছে। সড়ক দ্রুত সংস্কারের দাবি এলাকাবাসীর।
রবিবার দুপুরে এই প্রতিবেদককে এলাকার বাসিন্দা মো. তাজু মিয়া, জয়নাল মিয়া, জাকির হোসেন, কাশেম মিয়া, উকিল মিয়া ও মোল্লা মিয়া জানান, মাইজবাড়ি পূর্বপাড়া এলাকায় এই সড়কের সংস্কার কাজ হচ্ছে না প্রায় ৭ বছর ধরে। একবার কাজ হয়েছিল এর আগে। বর্তমানে গ্রামের বাসিন্দা জামাল উদ্দিনের বাড়ির পাশে থেকে তৈয়ব আলীর বাড়ি পর্যন্ত সড়কের পাকা ঢালাই ভেঙে মাটির সড়কে পরিণত হয়েছে। সড়কের বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সামান্য বৃষ্টিতে পানি জমে কাদার সৃষ্টি হয়। এই কাদার উপর দিয়ে মানুষ ও যানবাহন চলাচল করে থাকেন প্রতিদিন। এতে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন মানুষজন।
কলেজে পড়–য়া শিক্ষার্থী কলি বেগম ও রিয়া বেগম বলেন,‘আমরা এই সড়কে চলাচলের সময় কাদা ছিটকে পড়ে জামা-কাপড়ে। হাঁটার সময় কাদায় ছিটকে পড়তে হয়। আমাদের এই সড়কের দ্রুত সংস্কার জরুরি ।’
গ্রামের বাসিন্দা মো. ছাদ আলী, মো. শাহনুর মিয়া ও ইসলাম উদ্দিন বলেন,‘আমাদের এই সড়ক সংস্কারের জন্য কয়েক বার জনপ্রতিনিধিদের বলেছি, কেউ পাত্তা দেননি। সড়কটি অবহেলায় থেকে এখন কাদা ও গহ্বরে ভরে গেছে। মানুষ চলাচলে অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। তাই জরুরিভিত্তিতে এই সড়কের সংস্কার প্রয়োজন।’
কুরবাননগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবুল বরকত বলেন,‘নবীনগর পয়েন্ট থেকে মাইজবাড়ি গ্রামের ভেতর হয়ে আলহেরা মাদ্রাসা পর্যন্ত সড়কের পাকাকরণের কাজ হবে। যেখানে কাদা সেখানে আর.সি.সি ঢালাই হবে। গার্ডওয়াল হবে, সড়কের পাশে ড্রেন হবে। প্রায় ৩৬ লাখ টাকা ব্যয়ে এই কাজ সম্পন্ন হবে আগামী জুন মাসের ভেতরে। অল্প দিনের মধ্যে কাজ শুরু হবে।’