মানিককে নাসিমের প্রার্থী ঘোষণা-উজ্জীবিত মানিক সমর্থকরা

স্টাফ রিপোর্টার
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, ১৪ দলের আহ্বায়ক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম রোববার ছাতকের চেচানের সমাবেশে মুহিবুর রহমানই মানিকই ছাতক- দোয়ারার আগামী নির্বাচনের প্রার্থী ঘোষণা দেওয়ায় উজ্জীবিত হয়েছেন তাঁর সমর্থকরা। ফেইসবুকেও মোহাম্মদ নাসিমের রেকর্ডকৃত এই বক্তব্য মানিক সমর্থকরা প্রচার করেছেন। সোমবার ছাতক- দোয়ারাবাজারের রাজনৈতিক কর্মীদের কাছেও এটি ছিল আলোচ্য বিষয়। অবশ্য. এই আসনের আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী শামীম আহমদ চৌধুরী বলেছেন, ‘মোহাম্মদ নাসিম যে বক্তব্য দিয়েছেন, তা কাম্য নয়।’
রোববার বিকালে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স’এর ৫০ শয্যা হাসপাতালের উদ্বোধন, দোলারবাজার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র ও ভারত সরকারের অর্থায়নে নির্মিত চেচান কমিউনিটি ক্লিনিকের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে চেচান ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন মাঠে একটি বড় সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মোহাম্মদ নাসিম। এসময় নাসিম বলেন,‘৫ বছর পর আগামী ডিসেম্বরেই নির্বাচন হবে। ফর্মুলা দিয়ে লাভ নেই, খেলা হবে, রেফারি থাকবে নির্বাচন কমিশন, এইখানে আগেও মানিক খেলেছে, এবারও খেলবে। মানিক ছিল, মানিক থাকবে।’ মোহাম্মদ নাসিমের এই বক্তব্য দেবার সময় মুহিবুর মানিকের হাজার হাজার সমর্থক করতালি দিয়ে সহমত জানায়।
দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইদ্রিছ আলী বীরপ্রতীক বললেন, ‘রোববার চেচানের সমাবেশে থাকা হাজার হাজার মানুষ আমাদের নেতা নাসিমের বক্তব্য শুনে আবেগতাড়িত, যারা সমাবেশে গিয়েছেন তাঁরাও উৎফুল্ল, যারা শুনেছেন তাঁরাও উৎফুল্ল।’
মুহিবুর রহমান মানিক এমপি এ প্রসঙ্গে বললেন,‘আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, জননেত্রী শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত নেতা মোহাম্মদ নাসিমের বক্তব্যে ছাতক-দোয়ারাবাজারের আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা উজ্জীবিত, মানুষ যেটি ধারণা করেছে, প্রত্যাশা করেছে, তিনি সেটিরই প্রতিধ্বনি ঘটিয়েছেন, এজন্যই হাজার হাজার মানুষ করতালি দিয়ে তাঁকে সমর্থন করেছে। এমন বক্তব্যে বিজয়ের পথ সুগম হয়।’
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা শামীম আহমদ চৌধুরী বলেন,‘দলের নীতিনির্ধারক সভানেত্রী শেখ হাসিনা, তিনি নৌকা যাকেই দেবেন আমি তাঁর পক্ষেই থাকবো। মোহাম্মদ নাসিম আমাদের দলের শ্রদ্ধেয় নেতা, কিন্তু তিনি যেভাবে ঘোষণা দিয়েছেন, সেটি কাম্য ছিল না।’



আরো খবর