মামলা রেকর্ড করা না হলে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘটের আল্টিমেটাম

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরে তুচ্ছ বিষয়ে নিয়ে পরিবহন শ্রমিক ও মৎস্য আড়তের লোকজনের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। পাল্টাপাল্টি থানায় অভিযোগ দায়ের করে কর্মসূচীর ঘোষণা দেয়া হয়েছে।
শুক্রবার বিকেল পাঁচটার দিকে জগন্নাথপুর বাজারে মৎস্য আড়ত ও বাজারের ব্যবাসীদের উদ্যোগে বাজার বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি প্রবীণ ব্যবসায়ী আবদার হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে জগন্নাথপুরের মৎস্য ব্যবসায়ী ও জগন্নাথপুর বাজার বণিক সভাপতি আফছর উদ্দিন ভূঁইয়াসহ ২০ থেকে ২৫ জন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে থানায় দায়ের করা মিথ্যা অভিযোগ অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় জগনন্নাথপুর বাজারের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে। সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র শফিকুল হক, কাউন্সিলর আবাব মিয়া, সুহেল আহমদ, বাজার বণিক সমিতির সভাপতি
আফছর উদ্দিন ভূঁইয়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক তাজউদ্দিন আহমদ, বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহির উদ্দিন, ব্যবসায়ী আব্দুল জব্বার, ছালিক আহমদ পীর, মুজিবুর রহমান, শশি কান্ত গোপ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাফরোজ ইসলাম প্রমুখ।
এদিকে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জগন্নাথপুর উপজেলা পরিবহন সড়ক মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি নিজামুল করিম ও সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম খেজুরের যৌথ সাক্ষরে স্থানীয় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ট্রাক চালক রাসেল মিয়াকে মারধরের ঘটনায় থানায় দায়েরকৃত অভিযোগটি যদি মামলা হিসাবে রেকর্ড করা না হয় তাহলে আগামী রোববার থেকে অনিদিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট পালিত হবে।
শ্রমিক ও ব্যবসায়ী সূত্রে জানা যায়, গত ৮ সেপ্টেম্বর হবিবনগর এলাকায় পরিবহন শ্রমিক ও মাছের আড়তের লোকজনের মধ্যে মারামারি ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ট্রাক চালক হবিবনগর এলাকার রাসেল মিয়া আহত হন। গত ৮ সেপ্টেম্বর ট্রাক ট্যাংকলরী ও কাভারভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন জগন্নাথপুর উপজেলা উপ-কমিটির সভাপতি জগন্নাথপুর পৌরএলাকার লুদরপুরের বাসিন্দা ফয়জুন নুর বাদি হয়ে জগন্নাথপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা সড়ক ও পরিবহণ মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি নিজামুল করিম বলেন, আমাদের ট্রাক চালককে অন্যায়ভাবে মারধর করা হয়েছে। এঘটনায় জগন্নাথপুর থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগটি মামলা হিসাবে রেকর্ড করা না হলে আগামী রবিবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য আমরা পরিবহন ধর্মঘট কর্মসূচী পালন করবো।
জগন্নাথপুর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি ও মৎস্য আড়ত ব্যবসায়ী আফসর উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, পরিবহণ শ্রমিকরা যানবাহনের নিকট থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে। এনিয়ে শ্রমিক ও মাছের আড়তের কর্মীদের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। শ্রমিকরা আমাদের আড়তের এক কর্মীকে মারধর করেছে। এবিষয়কে কেন্দ্র করে শ্রমিকরা মিথ্যা মামলা দিয়ে ব্যবসায়ীদেরকে হয়রানির চেষ্টা করছে। যার প্রতিবাদে গতকাল সভা হয়েছে। এবং পুলিশকে মিথ্যা মামলা রের্কড না করতে আহ্বান জানানো হয়েছে। তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে এবিষয়ে জগন্নাথপুর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুুতি চলছে।
জগন্নাথপুর থানার পরির্দশক তদন্ত নব গোপাল দাস বলেন, পুলিশ দুটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছে। বিষয়টি সামাজিক ভাবে নিস্পত্তির চেষ্টা চলছে। না হলে আইনানুগ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।