মালয়েশিয়ার এমপি জগন্নাথপুরের আবুল হোসেন

জগন্নাথপুর অফিস
প্রবাসী অধ্যুষিত জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর হাড়িকোণা গ্রামের মৃত. হাফিজ আবুল ফজলের ছেলে আবু হোসেন মালেশিয়ার এমপি নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি গত বুধবার অনুষ্ঠিত দেশের ১৪তম সাধারণ নির্বাচনে বুকিত বিনতাং পি ০৫৯ সংসদীয় এলাকা থেকে সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের দল বারিসান ন্যাশনাল (বিএন) প্রার্থী হিসেবে ২২হাজার ৪৫০ ভোট পেয়ে এমপি নির্বাচিত হন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পিকে আরের কাদরী খালিদ পেয়েছেন ১৮ হাজার ৩৬১ ভোট।
বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত আবুল হোসেন মালেশিয়ায় এমপি নির্বাচিত হওয়ায় তাঁর পৈত্রিক বাড়ি জগন্নাথপুরের সৈয়দপর হাড়িকোণা গ্রামে আনন্দ উচ্ছ্বাস দেখা দিয়েছে। এ উচ্ছ্বাস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে দেশে বিদেশে অবস্থানরত জগন্নাথপুরবাসীর মধ্যে।
শনিবার সরেজমিনে সৈয়দপুর হাড়িকোনা গ্রাম পরিদর্শনকালে আবু হোসেনের চাচাতো ভাই ওই গ্রামের মৃত আবুল কালামের ছেলে সৈয়দ মারুফ আহমদ বলেন, ‘তিনি (আবু হোসেন) এবারের বিশ্ব ইস্তেমায় বাংলাদেশে এসেছিলেন। ব্যস্ততার
কারণে গ্রামের বাড়িতে আসতে পারেননি।’
এছাড়াও তার বাবা আবুল কালামের অসুস্থতার খবর শুনে কয়েক বছর আগে স্ত্রী, ছেলে -মেয়ে নিয়ে দেশে এসে দেখে গিয়েছিলেন।
আবুল হোসেন এর চাচী সত্তরোর্ধ বৃদ্ধা সালমা খাতুন জানান, অনেক বছর পূর্বে আবুল হোসেনের পিতা মালেশিয়ায় গিয়ে সেখানের স্থায়ী বাসিন্দা বাঙালি নারী কুলসুমা বিবিকে বিয়ে করেন। দাম্পত্য জীবনে তাদের সাত ছেলে ও পাঁচ মেয়ে। তার মধ্যে আবু হোসেন দ্বিতীয়। সকল সন্তানের জন্ম মালেশিয়ায়। তবে তাঁদের বাবা জীবিত থাকাবস্থায় বড় দুই ছেলে আবু হাসান ও আবু হোসেনকে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে মাঝে মধ্যে আসতেন। বাবার মৃত্যুর পর বড় দুই ছেলে আবু হাসান ও আবু হোসেন প্রায় আড়াই বছর পূর্বে গ্রামের বাড়ি এসে কয়েক ঘন্টা সময় কাটিয়ে আমাদেরকে দেখে যান।
তিনি বলেন, আবু হোসেন এমপি হওয়ার খবরে আমরা আনন্দিত। আবু হোসেনের আরেক চাচাতো ভাই নুর আহমদ জানান, আবু হোসেন এমপি হওয়ার খবর শুনে আমরা গর্বিত ও আনন্দিত। তিনি বলেন, দুই বছর আগে একটি পারিবারিক বিয়ের অনুষ্ঠানে তাঁর সাথে আমাদের দেখা হয়েছিল।
গ্রামের বাসিন্দা সৈয়দ মোছাদ্দিক আহমদ বলেন, ‘কিছুদিন পূর্বে আমাদের সৈয়দপুর গ্রামের ৬জন প্রবাসী ব্রিটেনের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে লন্ডনের বিভিন্ন এলাকা থেকে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। এ আনন্দের রেশ কাটতে না কাটতেই মালেশিয়ায় আমার গ্রামের সন্তান আবুল হোসেন এমপি নির্বাচিত হয়েছেন শুনে খুবই গর্বিত বোধ করছি।’
সৈয়দুপর শাহারপাড়া ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান সৈয়দ লিলু মিয়া বলেন, ‘আমাদের ইউনিয়নের বাসিন্দা হিসেবে আমরা গর্বিত। সৈয়দপুরের সন্তান মালেশিয়ায় প্রতিনিধিত্ব করছেন যা আমাদেরকে গর্বিত করেছে।’
জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেন, ‘আবু হোসেন এর গর্বে গর্বিত জগন্নাথপুর উপজেলা। মালেশিয়ার মতো উন্নয়নশীল দেশে এমপি নির্বাচিত হয়ে তিনি আমাদেরকে গর্বিত করেছেন।’