মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালের দাবিতে শহরে বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার
প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকুরিতে ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল রাখাসহ আট দফা দাবিতে রবিবার বিকেলে শহরে বিক্ষোভ, স্মারকলিপি প্রদান ও অবস্থানগ্রহণ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমা-ের উদ্যোগে এই কর্মসূচি পালিত হয়। এতে মুক্তিযোদ্ধারাও অংশ নেন।
বেলা আড়াইটায় জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয় থেকে শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন তারা। পরে মিছিলসহ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে আট দফা দাবিতে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। এরপর আবার মিছিল নিয়ে পৌর শহরের আলফাত স্কয়ারে এসে বেলা তিনটায় অবস্থান নেন তাঁরা। এ সময় ওই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। অবস্থানগ্রহণ কর্মসূচি চলাকালে বক্তব্য দেন আয়োজক সংগঠনের জেলা সভাপতি মো. আশরাফুল ইসলাম, সহ-সভাপতি গোলাম আরিফ, সাধারণ সম্পাদক নোমানুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আনিরুজ্জামান, সংগঠনের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা শাখার সভাপতি মামুনুর রশিদ, ছাতক উপজেলা শাখার সভাপতি মাসুদ রানা, তাহিরপুর উপজেলা শাখার নেতা খসরুল আলম প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকুরিতে ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহাল করতে হবে। একই সঙ্গে সরকারি চাকরিতে জামায়াত-শিবির ও স্বাধীনতাবিরোধীদের সন্তান ও তাদের উত্তসূরীদের নিয়োগ দেওয়া বন্ধ এবং তাদের পরিচালিত প্রতিষ্ঠানসমূহ রাষ্ট্রের অনুকূলে নিয়ে আসতে হবে। বক্তারা আরও বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে কটুক্তিকারীদের চিহ্নিত করে তাদের আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে। একই সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধা পরিবার সুরক্ষা আইন প্রণয়ন ও তাদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি জানান তাঁরা।