মুক্তিযোদ্ধা মালু মিয়া পেলেন মইনুদ্দিন জালাল স্মৃতি পদক

স্টাফ রিপোর্টার
অকালপ্রয়াত যুবরাজনীতিবিদ, আন্তর্জাতিক পরিবেশ সংগঠক ও সুনামগঞ্জের খবর-এর প্রতিষ্ঠাকালীন উপদেষ্টা মইনুদ্দিন আহমদ জালাল। তাঁর স্মৃতিতে সুনামগঞ্জের খবর প্রবর্তন করেছে স্মৃতি পদক। ‘মইনুদ্দিন আহমদ জালাল স্মৃতি পদক’ নামে প্রবর্তিত প্রথম পদক পেয়েছেন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তরুণ বয়সে দেশের জন্য জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করা এই মুক্তিযোদ্ধার নাম মালু মিয়া। তাঁকে মইনুদ্দিন আহমদ জালাল স্মৃতি পদক দিয়ে সম্মানীত করা হয় বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে।
সম্মাননা গ্রহণ করার সময় মুক্তিযোদ্ধা মালু মিয়া পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নানকে বলেন, ‘রক্ত দিয়ে দেশকে স্বাধীন করেছি। এ দেশে দুর্নীতিবাজ দেখতে চাই না। আপনারা
দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করুন।’
দেশাত্মবোধ, সেবা ও নির্মোহ ব্যক্তিত্ব। এই তিনটি দিক বিবেচনা করে পদকের জন্য গঠিত জুরিবোর্ড মুক্তিযোদ্ধা মালু মিয়াকে এবার মনোনীত করেছেন। এখন থেকে প্রতি বছর একজনকে এই পদকের জন্য মনোনীত করে সম্মানীত করা হবে।
২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর ভারতের শিলং গিয়ে আকস্মিক মৃত্যুবরণ করেন মইনুদ্দিন আহমদ জালাল। দেশে ও বিদেশে একজন যুব রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত ছিলেন তিনি। বিশ্বব্যাপী যুব রাজনীতি সংগঠিত করার ক্ষেত্রে যুব উৎসবে মইনুদ্দিন জালাল নিয়মিত অংশ নিতেন। ছাত্র ইউনিয়ন ও যুব ইউনিয়নের রাজনীতির তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত পদচারণা ছিল তাঁর। সিলেট ও সুনামগঞ্জে প্রগতিশীল বিভিন্ন রাজনৈতিক আন্দোলন, অধিকার আদায়ের আঞ্চলিক আন্দোলনে সক্রিয় ছিলেন তিনি। সিলেটে শামসুর রাহমানের সফর ঠেকাতে মৌলবাদীদের তৎপরতা, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নামকরণবিরোধী তৎপরতা, গণজাগরণমঞ্চ, বিজ্ঞান লেখক ও ব্লগার অনন্ত হত্যার বিরুদ্ধে তাঁর ছিল প্রতিবাদী ভূমিকা। ভারতের টিপাইমুখে পরিবেশবিধ্বংসী বাঁধ নির্মাণের বিরুদ্ধে দেশে ও বিদেশে আন্দোলন সংগঠিত করার ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা ছিল তাঁর।
মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত মইনুদ্দিন আহমদ জালাল আন্তর্জাতিক পরিবেশ সংগঠন অঙ্গীকার বাংলাদেশের সভাপতিমন্ডলির সদস্য ও পরিচালক ছিলেন। সিলেট ও সুনামগঞ্জ বারের আইনজীবী মইনুদ্দিন আহমদ জালাল একজন মানবিক ও নির্মোহ ব্যক্তিত্ব হিসেবে রাজনৈতিক অঙ্গনে পরিচিত ছিলেন।
সুনাগঞ্জের খবর-এর বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে ‘মইনুদ্দিন আহমদ জালাল স্মৃতি পদক’ মুক্তিযোদ্ধা মালু মিয়ার কাছে হস্তান্তর করেন- তাঁর স্ত্রী শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক নাজিয়া চৌধুরী।