মোল্লাপাড়া ইউপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মতিউর রহমান

স্টাফ রিপোর্টার
মোল্লাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান দীর্ঘদিন অনুপস্থিত থাকায় এই ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান মতিউর রহমান। সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়াসমিন নাহার রুমা’র পাঠানো চিঠি থেকে এই তথ্য জানা গেছে।
গত ১৮ মার্চ থেকে এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল হক মামলায় জড়িত হয়ে অনুপস্থিত থাকায় ইউনিয়নের স্বাভাবিক কার্যক্রমসহ আর্থিক বিষয়াদি পরিচালনায় সমস্যার সৃষ্টি হওয়ায় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যগণ ১০ মার্চ এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেছেন বলে ওই চিঠিতে উল্লেখ রয়েছে। মতিউর রহমান ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।
ইউপি সদস্য মতিউর রহমান বলেন,‘উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমাকে এই সংক্রান্ত একটি চিঠি দিয়েছেন এবং জেলা প্রশাসক ও স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক মহোদয়কে এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার চিঠি পাঠিয়েছেন।’
স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক এমরান হোসেন জানান, তিনি এই ধরনের কোন চিঠি (শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টা) পাননি।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়াসমিন নাহার রুমা মুঠোফোন রিসিভ না করায় এই বিষয়ে তাঁর বক্তব্য যুক্ত করা যায়নি।
মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের হাওর আন্দোলনের আজাদ মিয়া গত ১৪ মার্চ বৃহস্পতিবার রাতে সুনামগঞ্জ শহর থেকে বড়পাড়ায় তাঁর নিজ বাসায় ফেরার সময় প্রাইমারী ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের সামনে দুর্বৃত্তের আক্রমণে মাথায় আঘাত পান। প্রথমে তাঁকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে এবং অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় সঙ্গে সঙ্গেই সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। তিন দিন অজ্ঞান অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে ১৭ মার্চ রাত সাড়ে সাতটায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি।
ঘটনার পরদিন (১৮ মার্চ) ৪ জনকে আসামী করে তাঁর ভাই আজিজ মিয়া বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামী করা হয় মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামের উকিল আলী, তার ছেলে পাভেল মিয়া, মোল্লাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান স্থানীয় আকিলপুর গ্রামের বাসিন্দ নুরুল হক ও রিপন আলীকে। পুলিশ এই মামলার এক আসামীসহ জড়িত সন্দেহে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।