লাঠি দিয়ে দ্রব্যমূল্যের দাম কমাতে পারবেন না- পরিকল্পনামন্ত্রী

সু.খবর ডেস্ক
লাঠি নিয়ে রাস্তায় নামা এটা ভালো কোনো উদাহরণ হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা লাঠি দিয়ে দ্রব্যমূল্যের দাম কমাতে পারবেন না। এ জন্য আপনাদের নীতিগতভাবে কিছু কাজ করতে হবে। রাজশাহী শহরকে দেশের উন্নয়ন কাজের বড় প্রমাণ বলে মন্তব্য করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।
বুধবার সকাল ১০টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ সিনেট ভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন মন্ত্রী।
রাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তারের সভাপতিত্বে আলোচনায় সভায় মন্ত্রী বলেন, আমরা যে দেশে উন্নয়ন করছি রাজশাহী শহর তার প্রমাণ। আমরা এখানে আরো বিনিয়োগ করব। শহরকে আরও সুন্দর করতে যা সহযোগিতার প্রয়োজন হয় তা করতে আমরা মেয়রের পাশে আছি।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান আরও বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী একজন সময়ানুবর্তী মানুষ। আমার দেখা ১৫ বছরে তিনি কখনোই কোনো মিটিংয়ে দেরি করে আসেননি। দেশের কাজে কোনো সময় একটু দেরি হওয়ার সম্ভাবনা থাকলে তিনি অনেক আগেই তা আমাদের জানিয়ে দেন।
প্রধানমন্ত্রীকে তীক্ষè স্মৃতি শক্তি সম্পন্ন মানুষ হিসেবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, অনেক আগে কাউকে কোনো কথা দিয়ে থাকলে তা তিনি মনে রাখেন যার উদাহরণ আমি নিজেই। দেশের সকল অঞ্চল তার চেনা, যে-কোনো অনুদান দেওয়ার সময় তিনি অনেক যাচাই-বাছাই করেন। অনুদানটি শহরে যাচ্ছে নাকি গ্রামে, কোন শ্রেণি-পেশার লোক এই অনুদানে লাভবান হবেন সকল কিছুই তিনি সকল দিক থেকে বিচার বিবেচনা করে কাজ করেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহস এবং দৃঢ়তা বাংলাদেশের উন্নয়নের পেছনে অনন্য ভূমিকা পালন করছে। সংকীর্ণ রাজনৈতিক স্বার্থে ধ্বংসাত্মক কর্মকা-ে যুক্ত না হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হলো আমাদের মডেল। তোমরা যারা আগামীকালে জাতির নেতৃত্ব দেবে তোমাদের তার কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ. এইচ. এম খায়রুজ্জামান (লিটন)। সম্মানিত অতিথি হিসেবে রাবি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মো. সুলতান-উল-ইসলাম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. অবাইদুর রহমান প্রামাণিকসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, রাজনৈতিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।