শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সরু, যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে

স্টাফ রিপোর্টার
শহরের অন্যতম ব্যস্ততম সড়ক আলফাত স্কয়ার থেকে কাজীর পয়েন্ট অংশ সরু থাকায় যান চলাচলে সমস্যা হচ্ছে। এই সড়কের ব্যস্ততা বেড়েছে আগের চেয়ে অনেক বেশি। সড়কটি’র কিছু অংশ বন্দোবস্ত দেবার কারণে ছোট হয়েছে। আবার কোন কোন অংশ অবৈধ দখলদারদের দখলেও রয়েছে।
আলফাত স্কয়ার (ট্রাফিক পয়েন্ট) থেকে কাজীর পয়েন্ট পর্যন্ত সড়কটির কোন কোন অংশে ছোট ছোট টঙ দোকানের পাশাপাশি গড়ে উঠেছে দীর্ঘস্থায়ী দোকানপাট। কমে যাচ্ছে সড়কের প্রশস্ততা।
শহরের উকিলপাড়া, কাজীরপয়েন্ট এলাকায় বন্দোবস্ত নিয়ে এবং অবৈধভাবে দখল করে
সড়ক সরু করা হয়েছে। পৌরসভার নিজস্ব ভূমি সড়কের চেয়ে অন্যের দখলে বেশি।
পৌরবিপণি থেকে পুরান কোর্ট’র সামনের অংশের দুই পাশে ভাসমান দোকানদার বসায় পথ ছোট হয়ে গেছে।
উকিলপাড়ার সাধন সিং বলেন, সড়ক দখল হয়ে গেছে। প্রতিদিনই সুরমা ক্লিনিকের সামনে ছোট খাটো দুর্ঘটনা ঘটে।
একই এলাকার বাসিন্দা সৈয়দ আমির আলী বলেন, সড়কের প্রায় ৫০ ফিট অংশ দখল হয়ে গেছে। বালুর মাঠ থেকে কাজীর পয়েন্ট পর্যন্ত সড়কের পাশের পৌরসভার জমি কারো কারো দখলে আছে। দখল উদ্ধার হওয়ার কথা শুনি কিন্তু হয় না।
সুরমা ক্লিনিকের সামনের স্টিলের দোকানী মো. উজ্জ্বল খন্দকার জানালেন, তিনি ঘরের মালিক নয়, ভাড়াটিয়া। ১২ ফুট প্রশস্ত ৩০ ফুট লম্বা একটি দোকানকোঠা আলী আকরাম নামের একজনের কাছ থেকে ভাড়া নিয়েছি। প্রথমে সিকিউরিটির জন্য দিয়েছি ২ লাখ। প্রতি মাসে ১২ হাজার করে দোকান ভাড়া দেই।
পৌরসভার মেয়র নাদের বখ্ত জানালেন, সড়কের পাশের পৌরসভার কিছু জমি বন্দোবস্ত দেবার সত্যতা স্বীকার করে সুনামগঞ্জের খবর’কে বলেন, আগে মানুষ কম ছিলো, এজন্য সড়ক বেশি বড় করার প্রয়োজন ছিলো না। এখন মানুষ বেড়েছে, সড়ক বড় করতে হবে। সড়ক বড় করার জন্য প্রকল্প প্রস্তাবনা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে পাঠানো হয়েছে। প্রকল্প অনুমোদিত হলে কাজ শুরু করবো। এটা সময়ের দাবি।