শান্তিগঞ্জে বিয়ের আশ্বাসে কিশোরীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত আটক

শান্তিগঞ্জ অফিস
শান্তিগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের আশ্বাসে এক কিশোরীকে (২২) কে ধর্ষণের অভিযোগে এক অভিযুক্তকে আটক করেছে শান্তিগঞ্জ থানা পুলিশ। এঘটনায় বুধবার দুপুরে ভূক্তভোগী ওই কিশোরী বাদী হয়ে অভিযুক্ত সোহাগ মিয়া (২৮) নামের ওই যুবকের বিরুদ্ধে শান্তিগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন। অভিযুক্ত সোহাগ মিয়া শান্তিগঞ্জ উপজেলার ডুংরিয়া (নোয়াগাঁও) গ্রামের নুর উদ্দিনের ছেলে। বুধবার দুপুরে ওই কিশোরীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত সোহাগ মিয়ার সাথে একই গ্রামের ওই কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক ৪ বছর ধরে। অভিযুক্ত সোহাগ মিয়া বিয়ের আশ^াস দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কিশোরীর সাথে দৈহিক মেলামেশা করে আসছে। সম্প্রতি অভিযুক্ত সোহাগ মিয়া অন্যত্র বিয়ের প্রস্তুতি নিলে কিশোরী তাঁকে বিয়ে করার জন্য চাপ দেয়। এতে অভিযুক্ত যুবক প্রেমের সম্পর্কের কথা অস্বীকার করে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শান্তিগঞ্জ থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক আবু বকর বাকী বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত সোহাগ মিয়াকে আটক করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে, আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠিয়েছেন। ভিকটিমকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
শান্তিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী মোক্তাদির হোসেন মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেন।