শাল্লায় জুয়ার আসর থেকে মহিলা জুয়ারিসহ ২৩ জুয়ারি আটক

পিসি দাস, শাল্লা
দুর্গম হাওরের উপজেলা শাল্লায় জুয়ার আসর থেকে মহিলা জুয়ারিসহ ২৩ জুয়ারিকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় উপজেলার হবিবপুর ইউনিয়নের দাড়াইন বাজার থেকে তাদের আটক করা হয়। শাল্লা থানার এসআই মাসুদ মিয়ার নেতৃত্বে একদল পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।
আটককৃতরা হলেন, শাল্লা উপজেলার হবিবপুর ইউনিয়নের কাশীপুর গ্রামের আবুল হোসেন (৫৮), এরশাদ মিয়া (৫০), আব্দুল হামিদ (৫৫), আশিক মিয়া (৩২), আঙ্গুর আলম (৫৫), কাবিল হোসেন (৪০), সিরাজ মিয়া (৫০), হোসেন মিয়া (২৮), ফরাজ মিয়া (২৪), ভোলানগর গ্রামের শিবেন্দ্র দাস (৩০), আটগাঁও ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের কবির মিয়া (২৪), ইমরান মিয়া (২৭), মোফাজ্জল হোসেন (২৭), দাউদপুর গ্রামের মনু মিয়া (৬০), শাল্লা ইউনিয়নের ইয়ারবাজ গ্রামের আব্দুল কাইয়ুম ((৪৮), ছন্দু মিয়া (৫৬), শাল্লা বড়বাড়ি গ্রামের আব্দুর রশিদ (৪৫), দিরাই উপজেলার চরনারচর ইউনিয়নের চরনারচর গ্রামের মোজাফ্ফর মিয়া (৩৫), নোয়াগাঁও গ্রামের গুলেনা বিবি (৪৫), শ্যামারচর গ্রামের ফুল মিয়া (৪০), স্বপন মিয়া (২৮), কিশোরগঞ্জ জেলার ইটনা উপজেলার শান্তিপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেন (২৮) ও আমজাদ আলী (৩২)।
পুলিশ জানায়, দিরাই-শাল্লা রোডের পূর্বপাশে ভোলানগর গ্রামের কাছের দাড়াইন বাজারে দিরাইয়ের মিরাজ মিয়া নামের একজনের দোকান ঘরে দীর্ঘদিন ধরে জুয়ার আসর বসছিল। বাজারটি থানা থেকে কিছু দূরে হওয়ায় প্রতিদিনই জুয়ার আসর বসত। এই জুয়ার আসরে ইঞ্জিন চালিত নৌযানে বিভিন্ন এলাকার জুয়ারিরা খেলতে আসত। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৩ জুয়ারিকে আটক করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিকাল সাড়ে ৬ টায় আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।
শাল্লা থানার ওসি (তদন্ত) জাহিরুল ইসলাম ২৩ জুয়ারিকে আটকের সত্যতা স্বীকার করে বলেন,‘আটককৃত জুয়ারিদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’