শিক্ষকের অভাবে স্কুল বন্ধ ছিল বুধবার

স্টাফ রিপোর্টার
তাহিরপুর উপজেলার শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের মোট শিক্ষার্থী ২০০ জন। মাটিয়ার হাওরপাড়ের এই বিদ্যালয়টিতে গত ২ মাস ধরে পাঠদান দিচ্ছেন মাত্র একজন সহকারি শিক্ষিকা।
সেই শিক্ষিকা গতকাল বুধবার বিদ্যালয়ে না যাওয়ায় বন্ধ ছিল দরজা-জানালা। বিদ্যালয়টি বুধবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত টানা বন্ধ থাকার বিষয়টি জানিয়েছেন শিবরামপুর গ্রামের একাধিক লোকজন।
তবে শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা নাদিরা বেগম দাবি করেছেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। উপজেলা অফিসে ছুটি চেয়ে ছুটি পাচ্ছেন না। বুধবার তিনি বিদ্যালয়ে গিয়েছিলেন। পরে সহকারি শিক্ষা অফিসারকে অবগত করে বিদ্যালয়ের কাজেই তাহিরপুর উপজেলা সদরে চলে গিয়েছিলেন। তিনি এই বিদ্যালয় নিয়ে বিপদে পড়েছেন। একাই পাঠদানসহ সবকিছু করছেন। অসুস্থ থাকার পরও ছুটি পাচ্ছেন না।
শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মতিউর রহমান বলেন, ‘ব্যক্তিগত কাছে আমি বুধবার ভোরে সীমান্ত এলাকায় গিয়েছিলাম, সন্ধ্যায় বাড়িতে এসেছি। গ্রামের লোকজন মোবাইল ফোনে আমাকে জানিয়েছেন ম্যাডাম না আসায় বুধবার স্কুল বন্ধ ছিল। ’
তাহিরপুর উপজেলা সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বিপ্লব চন্দ্র সরকার বলেন,‘ বুধবার শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি বন্ধ থাকার বিষয়টি কেউ জানায় নি। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। একজন শিক্ষক তাই এই বিদ্যালয়ের শিক্ষিকাকে ছুটি দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। প্রধান শিক্ষক নাজমুল হুদা বিনা অনুমোদনে অনুপস্থিতি আছেন। সেজন্য তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। একজনকে ওই বিদ্যালয়ে বদলী করা হয়েছিল, তিনি যোগদান করেননি। বিদ্যালয়ে খুব দ্রুত একজন শিক্ষক দেয়া হবে।’