শিক্ষক প্রতিস্থাপনে দুর্নীতির অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক পদায়নে ব্যাপক অনিয়ম দুর্নীতির পর এবার শিক্ষক প্রতিস্থাপনে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।
তাহিরপুরের শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষককে অন্যত্র বদলী ও শিক্ষক প্রতিস্থাপনে অনিয়মের অভিযোগ করছেন বিদ্যালয়ের দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা মো. মোদাচ্ছির আলম সুবল।
জেলা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার অনিয়ম-দুর্নীতির প্রতিকার চেয়ে বুধবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের মহা পরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন তিনি।
অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, তাহিরপুর উপজেলাধীন শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২০০ জন ছাত্র-ছাত্রী অধ্যায়নরত। বিদ্যালয়টিতে ৫ জন শিক্ষকের স্থলে দীর্ঘদিন ধরে প্রধান শিক্ষকসহ মাত্র ২ জন শিক্ষক কর্মরত ছিলেন। উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা বিপ্লব চন্দ্র সরকার ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ফেরদৌস আলম অর্থ বাণিজ্যের মাধ্যমে গত ১৫ মে প্রতিস্থাপন না দিয়েই প্রধান শিক্ষক নাজমুল হককে অন্যত্র বদলী করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেন। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করা হলে বলা হয়, বিদ্যালয়ে পদায়নকৃত শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। কিন্তু অদ্যবধি কোনো শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয় নি।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পঞ্চানন বালা বলেন,‘প্রধান শিক্ষকদের বদলীর বিষয়ে বা প্রতিস্থাপনে কোন আর্থিক সুবিধা নেয়ার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। শিক্ষকদের প্রতিস্থাপনের প্রস্তাব উপজেলা অফিস থেকে করা হয়। এর আদেশ দেন বিভাগীয় শিক্ষা অফিস। এখানে আমার কোন অনিয়ম-দুর্নীতি করার সুযোগ নেই। তাহিরপুরের শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বদলী নিয়ে যেসব অভিযোগ করা হচ্ছে তা মোটেও সঠিক নয়।’