শিল্পকলা একাডেমির আনন্দ শোভাযাত্রা

স্টাফ রিপোর্টার
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রতিষ্ঠার ৪৪ বছর পূর্তি উপলক্ষে সোমবার সুনামগঞ্জে আনন্দ শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে। জেলা শিল্পকলা একাডেমীর উদ্যোগে এই কর্মসূচি পালিত হয়। এতে শহরের বিভিন্ন সংগঠনের সংস্কৃতিকর্মীরা অংশ নেন।
বিকাল সাড়ে চারটায় পৌর শহরের ঐতিহ্য জাদুঘর প্রাঙ্গণ থেকে সংস্কৃতিকর্মীরা বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা বের করেন। শোভাযাত্রায় ব্যানার, ফেস্টুন, রঙিন বেলুন এবং সুনামগঞ্জের লোককবিদের প্রতিকৃতি নিয়ে অংশ নেন তাঁরা। শোভাযাত্রা চলাকালে সমবেত কণ্ঠে দেশের গান পরিবেশন করেন সংস্কৃতিকর্মীরা। শোভাযাত্রা শহরে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার ঐতিহ্য জাদুঘর প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়।
শোভাযাত্রা শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য বিজন সেন রায়ের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক কামরুজ্জামান।  
এ ছাড়াও বক্তব্য দেন জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা আহমেদ মঞ্জুরুল হক চৌধুরী, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর প্রশিক্ষক ও সংগীতশিল্পী তুলিকা ঘোষ চৌধুরী, সদর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ কুমার চন্দ প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কামরুজ্জামান বলেন, আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতিকে সব ক্ষেত্রে প্রাধান্য দিতে হবে। সুস্থ সংস্কৃতির বিকাশ একটি জাতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়। তাই তরুণ প্রজন্মকে সংস্কৃতি চর্চায় উৎসাহিত করতে হবে। তিনি আরও বলেন, সুনামগঞ্জ হলো লোকগানের ভান্ডার। এখানে অসংখ্য বাউল, কবি ও মরমি সাধক জন্মেছেন। তাঁদের সৃষ্টি ধরে রাখতে হবে। আলোচনা সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।