- সুনামগঞ্জের খবর » আঁধারচেরা আলোর ঝলক - http://sunamganjerkhobor.com -

শীতকালীন সবজি বাজারে

স্টাফ রিপোর্টার
শীতকালীন সবজি বাজারে আসা শুরু করেছে। বাজার জুড়ে এখন কেবলই রঙিন সবজির সমারোহ। দেখলেই চোখ জুড়িয়ে যায়। তবে দাম বেশি, যা সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের বাইরে। ফুলকপি, বাঁধাকপি, টমেটো, পটল, শসা, সিম, ফুলকপি, মুলা, বেগুন, সিসিঙা, ঝিঙা, লালশাঁক, গাজর সহ আরও অনেক রকমের শীতকালীন সবজি উঠেছে বাজারে।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এবার বন্যা, বৃষ্টি না হওয়ায় শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হয়েছে। যা মৌসুমে সুনামগঞ্জের চাহিদা মিটিয়ে দেশের অন্যান্য এলাকায় রপ্তানি করা সম্ভব হবে।
সুনামগঞ্জ পৌর শহরের সবজির বাজার ঘুরে দেখা গেছে, শীতকালীন সবজি বাজারে আসতে শুরু করেছে। প্রতিদিন সকালে বিভিন্ন এলাকা থেকে নৌকা করে খুঁচরা বিক্রেতাদের কাছে সবজি দিয়ে যান চাষীরা। এসব সবজির চাহিদা থাকায় বিক্রেতারাও খুশি।
টমেটো কেজি প্রতি ৪০ টাকা, মরিচ ১৪০ টাকা, পটল ৪০ টাকা, শসা ৩০ টাকা, সিম ১২০ টাকা, মোলা ৪০ টাকা, বেগুন ৫০ টাকা, সিসিঙা ৪০ টাকা, জিঙা ৫০ টাকা, গাজর ১২০ টাকা, মুখি ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও ফুলকপি সাইজ অনুযায়ী ৪০-৫০ টাকা, লালশাক মোটা প্রতি ১০ টাকা ও লাউ ৬০- ৭০ টাকা ধরে বিক্রি হচ্ছে।
সুনামগঞ্জ পুরাতন জেল রোডের খুচরা সবজি বিক্রেতা মো. ফজর আলী বললেন, এখন কার্তিক মাস হলেও শীতকালীন বিভিন্ন রকমের সবজি বাজারে আসা শুরু করেছে। ক্ষেতের তরতাজা সবজি পেয়ে ক্রেতারাও খুশি।
একই এলাকার সবজি বিক্রেতা নুর মোহাম্মদ বললেন, এবার বৃষ্টি বাদল বেশি হয়নি। এজন্য কৃষকরা ভালো ফসল পেয়েছেন। মাত্র শীতকালীন সবজি আসা শুরু করেছে। কয়েকদিন পরে আরও বেশি আসবে।
সবজি ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমান খোকন ও চন্টু দাসও জানালেন একই কথা। বললেন নারায়ণ তলা বাজার প্রতিদিন পাইকারী মূল্যে সবজি সরাসরি চাষীর কাছ থেকে সংগ্রহ করেন তারা। এরপর পুরোতন জেল রোডের বাজাওে বিক্রি করেন।
রেজা মিয়ার সবজির আড়তের ম্যানেজার সোহান জানালেন, তাদের কাছে প্রতিদিন সকালে ক্ষেত থেকে সবজি এনে বিক্রি করেন চাষীরা। আগাম এই শীতকালীন সবজির দাম একটু বেশি হলেও অন্যান্য বছরের চেয়ে তা বেশি নয়। তবে কয়েকদিনের ভেতর পুরোদমে বাজারে শীতকালীন সবজি আসা শুরু হবে জানান তিনি।

  • [১]