শূন্যপদ পূরণের আশ্বাস জেলা প্রশাসকের

স্টাফ রিপোর্টার
সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসে দীর্ঘদিন ধরে লোকবল সংকট থাকায় দৈনন্দিন কাজের অগ্রগতি হচ্ছে না। এই কারণে বিভিন্ন স্থানের সেবা গ্রহিতারা এসে নানা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। অফিসের শূন্যপদ পূরণের আশ^াস দিলেন জেলা প্রশাসক।
সুনামগঞ্জ সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিস সূত্রে জানা গেছে, অফিসে কানুনগো পদ শূন্য, সার্ভেয়ার দুইজনের পদে আছেন ১ জন, জারীকারক দুইজনের পদে ১ জন, অফিস সহকারী ৫ জনের মধ্যে ১ জনের পদ শূন্য, চেইনম্যান দুই জনের মধ্যে আছেন ১ জন। সদর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে উপ সহকারী কর্মকর্তা নেই, পৈন্দা ইউনিয়ন ভূমি অফিসে উপ সহকারী কর্মকর্তা নেই।
সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে বুধবার দুপুরে সদর উপজেলা ভূমি অফিসে গিয়ে শহরতলীর মইনপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের সাথে কথা হয়। তিনি জানান,‘আমরা ৪ জনে মিলে সরকারী খাস জমি বন্দোবস্ত পেয়েছি। কিন্তু সার্ভেয়ার দিয়ে জায়গা নির্ধারণ করতে ১ মাস ধরে ভূমি অফিসে আসা-যাওয়া করছি। কোনো কাজ হচ্ছে না। আজও এসেছি।’
কথা হয় শহরতলীর পূর্বইব্রাহীমপুর গ্রামের আব্দুল হান্নানের সাথে। তিনি জানান, ‘আমি গ্রামের সরকারী হালট বের করতে ভূমি অফিসে আবেদন করেছি প্রায় দেড়মাস আগে। ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার সংকট থাকায় বার বার সময় পিছানো হচ্ছে। এতে আমার ভোগান্তি বেড়ে চলেছে।’
এ বিষয়ে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নুসরাত ফাতিমা জানান,‘অফিসে লোকবল সংকট থাকায় পরিকল্পনা অনুযায়ী দৈনন্দিন কাজের অগ্রগতি হচ্ছে না। লোকবল সংকট থাকায় আমার দায়িত্ব পালনে নানা সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।’
সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ বলেন,‘সদর ভূমি অফিসে লোকবল সংকট আছে এটা সঠিক। এই সংকট নিরসনের জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ে জানানো হয়েছে। আশা করি এক মাসের মধ্যে সকল শূন্যপদ পূরণ হবে। এছাড়া সিলেট অঞ্চলে ইউনিয়ন ভিত্তিক ভূমি অফিস নেই। এই অঞ্চলে ৫টি ইউনিয়নের সেবা গ্রহিতাদের জন্য একটি করে ভূমি অফিস। আমরা প্রতিটি ইউনিয়নের জন্য একটি ভূমি অফিস থাকার কথা ভিডিও কনফারেন্সে বলেছি।’