শেখ হাসিনাকে একগুচ্ছ উপহার দেবে বিশ্বভারতী

সু.খবর ডেস্ক
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার বোলপুরে শান্তিনিকেতন সফরে সেখানকার ঐতিহ্য ও প্রথা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নান্দনিক আলপনাসহ একগুচ্ছ উপহার দেবে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়। একই উপহারসামগ্রী দেওয়া হবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের হাতে গড়া শান্তিনিকেতনের নিজস্ব আদলের আলপনায় আঁকা দুটি চিত্রকর্ম দুই প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ।
নরেন্দ্র মোদির হাতে তুলে দেওয়া হবে দক্ষিণ ভারতের হাসান জেলার হেলবিন্দু মন্দিরের ভাস্কর্যের আদলে ফুটিয়ে তোলা আলপনাচিত্র। আর শেখ হাসিনাকে দেওয়া হবে বর্ষায় ময়ূরের আনন্দ প্রকাশের অনুকরণে আঁকা দৃষ্টিগ্রাহী একটি আলপনাচিত্র। দুটি আলপনাই এঁকেছেন বিশ্বভারতীর শিক্ষাসত্রের অধ্যাপক সুধীর মুখোপাধ্যায়।
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সময় শান্তিনিকেতন-বিশ্বভারতীর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আলপনা আঁকা ছিল একটি রীতি। সুকুমারী দেবীর উদ্যোগে এই আলপনা আঁকা হতো। পরে এই আলপনার ঐতিহ্য বজায় রেখে বিভিন্ন পরিবর্তন ঘটিয়ে শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে যান বিখ্যাত শিল্পী অধ্যাপক নন্দলাল বসু। তিনি এ আলপনা অঙ্কনের অনুপ্রেরণা পেয়েছিলেন অজন্তা গুহাচিত্রের অলঙ্করণ থেকে। বিশ্বভারতীর সেই রীতি-ঐতিহ্য সামনে রেখে আলপনায় বৈচিত্র্য এনেছেন অধ্যাপক সুধীর। এই আলপনায় ব্যবহৃত হয়েছে ঐতিহ্যগত এলামাটি ও গেরিমাটি রঙ।
এ বিষয়ে রবীন্দ্রভবনের প্রাধিকারিক নীলাঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, দুই প্রধানমন্ত্রীকে শান্তিনিকেতনের ঐতিহ্যবাহী বেশ কিছু উপহার দিতে চায় বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। তার মধ্যে দুটি আলপনাচিত্র রয়েছে। আলপনা ছাড়াও তাদের উপহার দেওয়া হবে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আঁকা চিত্রাবলির পাঁচ খণ্ডের একটি সেট, গীতাঞ্জলি ও পাঠভবনের শিশুদের তৈরি বিভিন্ন হাতের কাজের সামগ্রী।
এদিকে, বুধবার বিশ্বভারতী পৌঁছেছেন বাংলাদেশের সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর ও ভারতে নিযুক্ত হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী।
শেখ হাসিনার বিশ্রাম নেওয়ার জন্য নির্ধারিত উদয়নগৃহ ঘুরে দেখেন সৈয়দ মোয়াজ্জেম। অন্যদিকে, আসাদুজ্জামান নূর বাংলাদেশ ভবন পরিদর্শন করেন এবং ভবনের ভেতর মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরটিও ঘুরে দেখেন।
২৫ মে শুক্রবার বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য নরেন্দ্র মোদি। বিশ্বভারতীতে ‘বাংলাদেশ ভবন’-এর উদ্বোধন করবেন শেখ হাসিনা।