সম্প্রীতির রাজনীতি নষ্টে অগ্নিকাণ্ড বিএনপির সাজানো

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম কয়ছর আহমদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় আওয়ামী লীগকে দায়ী করায় প্রতিবাদ সভা করেছে জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ।
মঙ্গলবার উপজেলা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ে প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকমল হোসেন।
সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু’র পরিচালনায় প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সিদ্দিক আহমদ।
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি হারুন রাশীদ, সহ সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম মশাহিদ, পৌরসভার সাবেক মেয়র মিজানুর রশীদ ভূঁইয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জয়দ্বীপ সুত্রধর বীরেন্দ্র, পাটলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আঙ্গুর মিয়া, সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসান, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছদরুল ইসলাম, আশারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আব্দুল জব্বার, শ্রম সম্পাদক সৈয়দ শেফুল আমিন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মুজিবুর রহমান, সহ প্রচার সম্পাদক ফিরোজ আলী, সদস্য আফু মিয়া, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন, সহ সভাপতি সাইফুল ইসলাম রিপন, ফজরুল ইসলাম, পৌরসভার প্যানেল মেয়র সাফরোজ ইসলাম, পাটলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জমশেদ মিয়া তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক মনু মোহাম্মদ মতছির, মিরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আতিকুর রহমান আতিক, আশারকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস ছত্তার, কলকলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বশির আহমদ, সহ সভাপতি মিজানুর রহমান, দিলাওর হোসেন দুলা, যুগ্ম সম্পাদক সুহিন আহমদ দুদু, জেলা ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম জামাল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. আব্দুল মুকিত, সাধারণ সম্পাদক তাহা আহমদ, পৌর ছাত্রলীগের আহবায়ক মিসবাহ আহমদ প্রমুখ।
এদিকে বিএনপির নেতার বাড়িতে অগ্নিকা-ের ঘটনায় আওয়ামী লীগকে মিথ্যাভাবে জড়িতে অপ্রচার করায় বিকেলে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে আওয়ামী লীগ।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকমল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু’র স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত দেড় যুগ ধরে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় রয়েছে। এই সরকারের শাসনামলে জগন্নাথপুরে একটিও রাজনৈতিক অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। রাজনৈতিক সম্প্রতির এ উপজেলায় হঠাৎ করে একটি সাজানো অগ্নিকা-ের ঘটনায় অন্যায়ভাবে আওয়ামী লীগকে দায়ী করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল হোসেন আলমগীরসহ, জেলা ও উপজেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ বিবৃতি দিয়েছেন। এছাড়া স্থানীয় বিএনপি প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। রাজনৈতিক ফায়দা আদায়ে আওয়ামী লীগকে জড়িয়ে তারা অপচেষ্টা চালাচ্ছে। অবিলম্বে এসব ষড়যন্ত্রের রাজনীতি বন্ধ করা না হলেও আওয়ামী লীগ দাঁত ভাঙা জবাব দেবে।
জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকমল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু বলেন, বিএনপি নেতার বাড়িতে আগুনের ঘটনা প্রতিবেশীরাও জানেন না। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জানতে পারলাম এ ঘটনায় আওয়ামী লীগকে দায়ী করা হচ্ছে। এতে আমরা বিস্মিত। শান্তির এ জনপদে বিএনপি রাজনৈতিক সুবিধা নিতে ষড়যন্ত্র মেনে উঠেছে। সম্প্রীতির রাজনীতি নষ্ট করতে চায় তারা।
জানা যায়, জগন্নাথপুর পৌরসভার ছিলিমপুর এলাকার বাসিন্দা যুক্তরাজ্য বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম কয়ছর আহমদ ও তাঁর ছোট ভাই কবির আহমদের বাড়ির একটি গাড়ীর গ্যারেজে গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাতে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। তবে এতে কোন ক্ষয়ক্ষতি কিংবা হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এ ঘটনায় স্থানীয় বিএনপি সরকারি দলকে দায়ী করে গত ১৭ সেপ্টেম্বর জগন্নাথপুর পৌর শহরের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে।
এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এ ঘটনায় কোনো হতাহত বা ক্ষয়-ক্ষতি কিছুই হয়নি। এ বিষয়ে আমরা কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। তবে পুলিশ মূল ঘটনা জানতে কাজ করে যাচ্ছে।