সম্প্রীতি বজায় রাখতে আজীবন কাজ করে যাব -নুরুল হুদা মুুকুট

স্টাফ রিপোর্টার
জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি নুরুল হুদা মুকুট বলেছেন, ‘সুনামগঞ্জ শহর শান্তির শহর, সম্প্রীতির শহর। সম্প্রীতির শহরে ছোট থেকে বড় হয়েছি। ছাত্র রাজনীতি থেকেই প্রগতিশীলতার পক্ষে কাজ করেছি। সুনামগঞ্জের শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখতে আমি আজীবন কাজ করে যাব। এই শহরে যুগ যুগ ধরে ঈদ-পূজাসহ সকল উৎসব শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তার ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে সম্প্রীতির পক্ষে ছিলাম, আছি- থাকব।’
তিনি আরও বলেন,‘ আমি প্রায় দেড়যুগ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছি। চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দিতে কারো কাছ থেকে কোন সময় টাকা নেইনি। সব সময় গণমানুষের পক্ষে রাজনীতি করেছি। কোন সময় নিজেকে সাম্প্রদায়িকতায় বিভক্ত করিনি। জেলা পরিষদের দায়িত্বভার গ্রহণের পর থেকেই প্রাতিষ্ঠানিক উন্নয়নে কারো সাথে বিমাতাসূলক আচরণ করিনি। কাউকে বেশী-কাউকে কম বরাদ্দ দেইনি। মন্দির-মসজিদে সমানভাবে বরাদ্দ দিয়েছি। তবে এলাকার উন্নয়নে সকল জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসতে হবে। তাইলেই কাক্সিক্ষত উন্নয়ন সম্ভব হবে। ’
সোমবার সন্ধ্যায় জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সুনামগঞ্জ পৌর এলাকার ২৩টি দুর্গা পূজা পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি। মতিবিনিময় সভায় নুরুল হুদা মুকুট পৌর এলাকার প্রতি দূর্গা পূজায় নগদ ১০ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদানের ঘোষণা দেন। পূজার আগেই টাকা প্রদান করা হবে বলে জানান তিনি।
জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুটের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. এমরান হোসেন, সিনিয়র আইনজীবী স্বপন কুমার দেব, কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন পরিষদের সহ সভাপতি নৃপেশ তালুকদার নানু, সুনামগঞ্জ শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রম দুর্গাপূজা পরিচালনা কমিটির সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ পরিমল কান্তি দে, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাচনাবাজার ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম শামীম, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাড. বিমান কান্তি রায়।
মতবিনিময় সভায় পৌরসভার এলাকার ২৩টি পূজা পরিচালনা কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সৈয়দ তারিক হাসান দাউদ, প্রবীণ শিক্ষাবিদ ধুর্জটি কুমার বসু, সুনামগঞ্জ শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রম দুর্গাপূজা পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক যোগেশ্বর দাশ, কেন্দ্রীয় দুর্গা বাড়ি মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি বিকাশ রঞ্জন চৌধুরী ভানু, অ্যাড. পরিতোষ রায়, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সহ সভাপতি কাজল চন্দ্র দে, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর চন্দ্র দাস, তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অমল কান্তি কর, সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বিপ্রেশ কান্তি রায় বাপ্পী, জেলা যুবলীগ নেতা সবুজ কান্তি দাস, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. অনুপ কুমার ধর, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাড. আব্দুল খালেক, যুব লীগ নেতা বকুল তালুকদার, জেলা ছাত্র লীগের সভাপতি দিপংকর কান্তি দে, সাংগঠনিক সম্পাদক জুনায়েদ আহমদ প্রমুখ।