সর্বোচ্চ স্কোর গড়েও পারল না বাংলাদেশ

সু.খবর ডেস্ক
এক ম্যাচ বাকি থাকতেই তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে গেছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। তবে আজ ডাবলিনে শেষ ম্যাচটা তারা হেরে গেছে ৬ উইকেটে।
এশিয়া কাপ জেতার পর এক ম্যাচ বাকি থাকতে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয়—টানা সাফল্য পাওয়া বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের সামনে সুযোগ ছিল প্রথমবারের মতো কোনো দলকে ধবলধোলাই করা। সুযোগটা অল্পের জন্য হাতছাড়া হলো মেয়েদের। ডাবলিনে আজ সিরিজের শেষ ম্যাচে তাঁরা আইরিশদের কাছে হেরেছেন ৬ উইকেটে।
শেষ ওভারে আয়ারল্যান্ডের দরকার ছিল ১১ রান। আইরিশদের আটকানোর দায়িত্ব পড়ে আগের দুই ম্যাচে দুর্দান্ত বোলিং করা জাহানারা আলমের ওপর। প্রথম তিন বলে হলো ৩ রান। চতুর্থ বলে থিতু হয়ে যাওয়া আইরিশ অধিনায়ক ডিলানি (৪৬) রানআউট হয়ে গেলে সমীকরণটা আরও কঠিন হয়ে যায় আয়ারল্যান্ডের সামনে। কঠিন এই কাজটা সহজ করে দিলেন জয়েস। সহজ কী, ৩ বলে ৭ রান তুলে ম্যাচটা জিতেই ফিরলেন জয়েস।
অথচ পরিসংখ্যান বাংলাদেশের হয়েই কথা বলছিল। প্রথমে ব্যাট করে বাংলাদেশ করে ৪ উইকেটে ১৫২, মেয়েদের টি-টোয়েন্টিতে এটাই তাদের সর্বোচ্চ। রেকর্ড আরও একটা হয়েছে। তিনে নামা ফারজানা হক অপরাজিত ছিলেন ৬৬ রানে, টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এটাই তাঁর সর্বোচ্চ। শুধু তাঁর কেন, মেয়েদের টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের ব্যাটারদের মধ্যে এটিই সর্বোচ্চ।
এত রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড ছিল না আয়ারল্যান্ডের। সর্বোচ্চ ১১৬ রান তাড়া করার রেকর্ড ছিল তাদের। বাংলাদেশের দেওয়া ১৫৩ রানের লক্ষ্যটা কঠিন হয়ে যায় ৩০ রানে ২ উইকেট হারিয়ে। তখনই ম্যাচের গল্প পাল্টে দিতে তৃতীয় উইকেটে লুইস-ডিলানির প্রতিরোধ। দুজনের ৬৩ বলে ৯৩ রানের জুটির পরও বাংলাদেশের সুযোগ ছিল। কিন্তু সেটি আর কাজে লাগাতে পারল না। শেষ দিকে জয়েসের ১৪ বলে ২২ রানের ঝোড়ো ইনিংস দুর্দান্ত এক জয় এনে দিয়েছে আয়ারল্যান্ডকে।
তবু আয়ারল্যান্ড সফরটা বাংলাদেশের মেয়েদের ভালোই কেটেছে। সিরিজটা ২–১ ব্যবধানে বাংলাদেশ জিতেছে।