সাংস্কৃতিক রাজধানী ঘোষণার সব উপাদান সুনামগঞ্জে আছে

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জকে দেশের সাংস্কৃতিক রাজধানী ঘোষণার সব উপাদান এখানে আছে বলে মন্তব্য করেছেন বিদায়ী জেলা প্রশাসক ও জেলা শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি মো. সাবিরুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি সুনামগঞ্জ এখন দেশে-বিদেশি পর্যটকদের কাছে আকর্ষর্ণী স্থান। এ জেলার হাওরের রূপ-সৌন্দর্য সবাইকে মুগ্ধ করে। অসংখ্য সরমি সাধক, বাউল, লোককবির জন্ম এখানে। এ জেলার সংস্কৃতি অত্যন্ত সমৃদ্ধ। তাই সুনামগঞ্জকে সাংস্কৃতিক রাজধানী ঘোষণার যে আওয়াজ উঠেছে সেটাকে এগিয়ে নিতে জেলার রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের মানুষজনকে কাজ করতে হবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমির লোকসংস্কৃতিসংগ্রহশালা মিলনায়তনে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। জেলা শিল্পকলা একাডেমির পক্ষ থেকে মো. সাবিরুল ইসলামের বিদায় উপলক্ষে এই সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে মো. সাবিরুল ইসলামকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায় বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন।
মো. সাবিরুল ইসলাম তাঁর বক্তব্যে আরও বলেন, সুনামগঞ্জের মতো রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে সমৃদ্ধ একটি জেলা কখনো পিছিয়ে থাকতে পারে না। এ জেলার মানুষ সব ভালো কাজে অত্যন্ত আন্তরিক। এখানে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বন্ধ খুবই দৃঢ়। সুনামগঞ্জের হাওর মিঠাপানির মাছের ভান্ডার। এ জেলার বালু দিয়ে সারা দেশে বড় বড় অট্টালিকা তৈরি হয়। এ জেলা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। হাওরের সম্পদকে কাজে লাগাতে হবে। হাওরকেন্দ্রিয় পর্যটন গড়ে তোলার যে কাজ চলছে সেটাকে আরও এগিয়ে নিতে হবে।
জেলা শিল্পকলা একাডেমির সহসভাপতি প্রদীপ পাল নিতাইয়ের সভাপতিত্বে ও জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা আহমেদ মঞ্জুরুল হক চৌধুরীর সঞ্চালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন জেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সভাপতি নারীনেত্রী শীলা রায়, জেলা শিল্পকলা একাডেমির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট দেবদাস চৌধুরী রঞ্জন, শিল্পকলা একাডেমির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক অ্যাডভোকেট খলিল রহমান, শিল্পকলা একাডেমির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, শিল্পকলা একাডেমীর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা গীতিকার ফোরামের সভাপতি অরুণ তালুকদার।
অনুষ্ঠানে বিদায়ী জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলামকে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর পক্ষ থেকে সংবর্ধনা স্মারক ও উপহার দেওয়া হয়।
অদ্বৈত জন্মধাম (পণতীর্থ) পরিচালনা কমিটি
জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলামকে বিদায় সংবর্ধনা দিয়েছে শ্রীশ্রী অদ্বৈত জন্মধাম (পণতীর্থ) পরিচালনা কমিটি। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মো, সাবিরুল ইসলামের হাতে স্মৃতি স্মারক তুলে দেন শ্রীশ্রী অদ্বৈত জন্মধাম (পণতীর্থ) পরিচালনা কমিটি নেতৃবৃন্দ।
সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কানন বন্ধু রায়’র পরিচালনায় এসময় বক্তব্য রাখেন সভাপতি করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল।
এসময় উপস্থিত ছিলেন ধূর্জটি কুমার বসু, বিকাশ রঞ্জন চৌধুরী ভানু, মাখন লাল শর্ম্মা, জয়ন্ত রায়, বিকাশ কান্তি দে বাবুল, অনিমেশ পাল ভানু, বিজয় তালুকদার বিজু, স্মৃতিরতœ দাস, বকুল তালুকদার, স্বপন দাস, নারায়ন চক্রবর্তী, মঞ্জু তালুকদার, রমাকান্ত দেবনাথ, চন্দন রায়, রবীন্দ্র দেব,
এদিকে জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলামকে বিদায় সংবর্ধনা দিয়েছে স্টাম্প ভেন্ডার সমিতি সুনামগঞ্জ জেলা শাখা। উপস্থিত ছিলেন সমিতির সভাপতি আ. মালেক, সহ সভাপতি শরীফ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. আতিফুর রহমান, সহ সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান, উপদেষ্টা শফিকুল বারী তালুকদার, আ. কাইয়ুম, হীরা, সদস্য মো. জিয়াউর রহমান, শিহাব উদ্দিনসহ সমিতির সদস্যবৃন্দ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি