সাবেক শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখর ছিলো ক্যাম্পাস

স্টাফ রিপোর্টার
একদিকে চলছে সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের মাঠে প্লাটিনাম জয়ন্তী উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা। অন্যদিকে চলছে বন্ধু বান্ধবীদের সাথে ফটোসেশন আর আড্ডা। আর এসব কিছুর ফাঁকে ফাঁকে সবাই একবার হলেও মাঠ ছেড়ে যাচ্ছেন প্রিয় সেই চিরচেনা ক্যাম্পাসে। পুকুর পাড়ের নারিকেল গাছের সারি আর ক্যাম্পাসের সেই শ্রেণি কক্ষগুলোর আড়ালে খুঁজছেন কাটানো মুহুর্তগুলো।
শুক্রবার প্লাটিনাম জয়ন্তী উৎসবের দিন সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজে এমনই দৃশ্য দেখা গেছে। সাবেক এই শিক্ষার্থীদের পদচারণায় সারাদিন মুখর ছিলো সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ। কলেজের ভিতরে হেঁটে হেঁটে পুরো কলেজ দেখেছেন সবাই। কেউ এসেছেন একা একা কেউ এসেছেন পরিবার পরিজন নিয়ে। নিজের স্ত্রী ও বাচ্চাদের দেখাচ্ছেন নিজের কলেজ। শোনাচ্ছেন সেই সোনালী দিনের কথা। অন্যরা কলেজে ছবি তুলছেন। যেখানে কলেজ আড্ডায় কাটিয়েছেন জীবনের কয়েকটি বছর। কেউ নব নির্মিত শহীদ মিনার দেখছেন।
কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী ইকবাল হোসেন বললেন, প্লাটিনাম জয়ন্তী উৎসবের জন্য দীর্ঘদিন পর নিজের ক্যাম্পাসে এলাম। ঘুরে ঘুরে সেই প্রিয় স্থানগুলো দেখছি। যেখানে কাটিয়েছি জীবনের সুন্দর মুহুর্তগুলো।
ফারজানা লাকী বললেন, ইন্টারমিডিয়েট পাশ করে উচ্চ শিক্ষার জন্য কলেজ ছেড়ে সিলেট চলে যাই। এরপর আসা হয়নি। উৎসবের জন্য আবারও সেই ক্যাম্পাসে এসেছি। এ খুশী বলে বুঝানোর মতো না। নিজের ক্যাম্পাসের মায়া কত যে মধুর।
এনজিও সংস্থায় কর্মরত মোস্তফা কামাল বলেন, সুনামগঞ্জের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের শিক্ষার্থী আমরা। এই কলেজের পড়াশোনার সুযোগ পেয়ে আমরা গর্বিত অনুভব করি। শিক্ষা জীবন শেষে চাকরিতে ব্যস্ত হয়ে পড়ি। আজ উৎসবে স্ত্রী ও বাচ্চাদের নিয়ে এসেছি। আমার সন্তান ও বউকে আমার কলেজ দেখাতে পেরে ভালো লাগছে। শতবর্ষ পালন করবো এমন প্রত্যাশা করি।