সাবেক সাংসদ আবদুল মজিদ আর নেই

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জ পৌর শহরের উকিলপাড়া এলাকার বাসিন্দা সাবেক সাংসদ ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি, পি.পি মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল মজিদ (৬৭) শনিবার সকাল সাড়ে আটটায় সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে গেছেন। আবদুল মজিদ সুনামগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সভাপতি ছিলেন। তিনি ১৯৯১ সালের জাতীয় নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে সুনামগঞ্জ-৫ আসন (ছাতক ও দোয়ারাবাজার) থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন।
অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ দোয়ারাবাজার মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক ছিলেন। ২২ ডিসেম্বর ১৯৭৯ থেকে ২৮ জুন ১৯৮৯ পর্যন্ত এই বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেছেন তিনি। এর আগে ১৯৭৬ ইংরেজিতে দোয়ারাবাজারের টেংরা নি¤œমাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২ বছর সহকারী শিক্ষক ছিলেন তিনি। ১৯৭৮ সালের শেষ দিকে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার রঙ্গারচর উচ্চ বিদ্যালয়েও শিক্ষকতা করেছেন এই মুক্তিযোদ্ধা।
তাঁর মৃত্যুতে সুনামগঞ্জের রাজনীতিক, আইনজীবীসহ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে।
দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের শান্তিপুর গ্রামের বাসিন্দা এই রাজনীতিক জীবনের দীর্ঘসময় দোয়ারাবাজার উপজেলা সদরে কাটিয়েছেন।
শনিবার দুপুরে মরহুমের মরদেহ প্রথমে তাঁর দোয়ারাবাজার উপজেলা সদরের বাসভবনে নিয়ে আসা হয়। বাদ আসর দোয়ারাবাজার সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মরহুমের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন দোয়ারাবাজার উপজেলা চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী বীর প্রতীক, নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. আব্দুর রহিম, দোয়ারাবাজার উপজেলা আ.লীগের যুগ্ম আহবায়ক সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কদ্দুস, সুরমা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহজাহান মাস্টার, লক্ষ্মীপুর ইউপি চেয়ারম্যান আমিরুল হক, মরহুম আব্দুল মজিদ’র বড় ভাই আব্দুল আওয়াল, ছোট ভাই মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ছোবান, ছেলে এডভোকেট নাজমুল হুদা হিমেল, বাংলাবাজার ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দীন আহমদ চৌধুরী রানা, পান্ডারগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ, সুরমা ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মামুনুর রশিদ, বোগলা বাজার ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম জুয়েল, সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. মোঃ চাঁন মিয়া, অ্যাড. মানিক মিয়া, অ্যাড. ছাইদূর রহমান সায়াদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, নরসিংপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সামসুল হক নমু, আব্দুল হালিম বীরপ্রতীক, আব্দুল মজিদ বীরপ্রতীক, দোহালিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ফখর উদ্দিন আহমদ, উপজেলা জাতীয় পাটির সাংগঠনিক সম্পাদক নুর হোসেন মো. আব্দুল্লাহসহ শিক্ষক, আইনজীবী, রাজনীতিক ও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
আজ রবিবার সকাল ১০ টায় পৌর শহরের সরকারি জুবিলী উচ্চবিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে ষোলঘর কবরস্থানে তাঁর দাফন সম্পন্ন হবে।