সুনামগঞ্জের উন্নয়ন ভাবনা শীর্ষক আলোচনা সভা

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জের উন্নয়ন ভাবনা শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. সফিউল আলমের সঞ্চালনায় আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল করিম ইমন, সিভিল সার্জন ডা. আশুতোষ দাশ, অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিলীপ কুমার মজুমদার, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মতিউর রহমান, ডা. সৈয়দ মুনাওয়ার আলী, সমাজসেবক নুরুর রব চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মতিউর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান, জেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা তফাজ্জল হোসেন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোবারক হোসেন, জেলা কৃষক লীগের সদস্যসচিব বিন্দু তালুকদার প্রমুখ।
সভায় সুনামগঞ্জের হাওর এলাকায় পর্যটন শিল্পের বিকাশ, হাওরের জন্য পৃথক মন্ত্রণালয় গঠন ও পরিকল্পনা গ্রহণ, দ্রুত গতির ইন্টারনেট সেবা চালু, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ওয়াইফাই চালু, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য হাওরভাতা চালু, সময়মত বোরো ফসলরক্ষা বাঁধ নির্মাণ, নৌপথ চালুর লক্ষে নদী খনন, শিক্ষার্থীদের যাতায়াত ব্যবস্থা করা, প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়ন, সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের শিক্ষক সংকট দূর করা, বালি-পাথরকে কেন্দ্র করে শিল্পপ্রতিষ্ঠান স্থাপন, বোরো ফসল মওজুদের জন্য বিশেষ গোদাম নির্মাণ, যোগাযোগ ও স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়ন করার দাবি জানান।
সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মতিউর রহমান বলেন,‘ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাজে লঞ্চঘাট এলাকার নদী ভাঙন রোধ হচ্ছে না। শুধু সরকারি অর্থ ব্যয়ে অনিয়ম-দুর্নীতি ও লুটপাট হচ্ছে।’
জবাবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পওর শাখা ১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর সিদ্দিক ভূইয়া বলেন,‘ লঞ্চঘাট এলাকা রক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ড কাজ করছে। কিন্তু মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমানের বাসার সামনের এলাকাটি প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত ছিল না। তারপরও জরুরিভিত্তিতে ভাঙন রোধে বস্তা ফেলাসহ প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এই এলাকার ভাঙন প্রতিরোধে নতুন আরো একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।’
মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান বলেন,‘ হাওরে বাঁধ নির্মাণের সময় অতিক্রম হচ্ছে, কিন্তু এখনও পিআইসি গঠন করা হয়নি। বাঁধের কাজ শুরু হয়নি। এতে করে হাওরের বোরো ফসল ঝুঁিকতে পড়তে পারে।’
জবাবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পওর শাখা ১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর সিদ্দিক ভূইয়া ও পওর শাখা ২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী খুশি মোহন সরকার বলেন,‘ ৫৫৩ টি প্রকল্পের জন্য অধিকাংশ পিআইসি গঠন করা হয়েছে। কিছু পিআইসি গঠনের কাজ বাকী রয়েছে যা দ্রুত সম্পন্ন করা হবে। বাঁধের কাজ শুরু হয়েছে এবং আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যেই বাঁধের কাজ সম্পন্ন করা হবে।’