সুনামগঞ্জের খবরের গ্রহণযোগ্যতা ও পাঠকপ্রিয়তা দিনদিন বেড়ে চলেছে

হোসেন তওফিক চৌধুরী
সংবাদপত্র এবং সাংবাদিকতা ক্ষেত্রে সুনামগঞ্জের অবদান অত্যন্ত উজ্জ্বল এবং সমৃদ্ধ। সুদূর অতীত থেকে শুরু ধারা আজ অবধি অব্যাহত আছে। দেশের প্রান্তকোণ এবং সীমান্তবর্তী সুনামগঞ্জ থেকে প্রকাশিত ‘দৈনিক সুনামগঞ্জের খবর’ বিগত সাত বছর ধরে নিরবিচ্ছিন্ন ভাবে সগৌরবে প্রকাশিত হচ্ছে। এই পত্রিকা সুনামগঞ্জের অভাব অভিযোগ, পাওয়া না পাওয়া এবং মানুষের সুখ-দুঃখের কাহিনী অত্যন্ত নিপুণভাবে তুলে ধরছে। এই পত্রিকায় মানুষের জীবন ও জীবনযাত্রা পরিপূর্ণভাবে চিত্রায়িত হচ্ছে। সুনামগঞ্জের মানুষ ও মাটিই এই পত্রিকার প্রধান উপজীব্য। প্রত্যক্ষ করা গেছে অত্যন্ত বস্তুনিষ্ঠতা এবং নিরপেক্ষতার সাথে এই পত্রিকা সুনামগঞ্জের দাবি দাওয়া নিয়ে অত্যন্ত সোচ্চার ও উচ্চকন্ঠ। প্রতিনিয়ত এর প্রতিফলন পত্রিকার পৃষ্ঠায় পরিলক্ষিত হয়। এক কথায় বলা যায় সুনামগঞ্জের মানুষ ও মাটির কথা বলার জন্যেই পত্রিকার গ্রহণযোগ্যতা ও পাঠকপ্রিয়তা দিনদিন বেড়ে চলেছে। অবস্থা এমন পর্যায়ে উপনীত হয়েছে যে, অন্যান্য পত্রিকা পড়লেও ‘দৈনিক সুনামগঞ্জের খবর’ পড়া না হলে যেনো পত্রিকা পাঠের তৃপ্তি মিটে না। আমি এই পত্রিকার একজন নিয়মিত পাঠক। মাঝে মধ্যে পত্রিকায় কিছু লেখার চেষ্টা করি। গভীরভাবে প্রত্যক্ষ করেছি যে, পত্রিকাটি হলুদ সাংবাদিকতার ধারে কাছেও নেই। পত্রিকায় খবর বা ভাষ্যে কল্পনার রঙিন ফানুস উড়ানো হয় না। পত্রিকাটি সাদাকে সাদা এবং কালোকে কালোই বলে আসছে। এই পত্রিকায় বাস্তব চিত্র চিত্রায়িত হয়। এই ধারা সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতার মূলনীতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। এখন এই নীতির কোন ব্যত্যয় ঘটে নি। পত্রিকা কর্তৃপক্ষ অত্যন্ত সতর্কতা এবং কঠোরতার সাথে এই বিঘোষিত নীতি অনুসরণ করে আসছেন। এই ধারা অব্যাহত থাকলে পত্রিকার ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল থেকে উজ্জ্বলতর হবে বলে আমার ধারণা ও দৃঢ় বিশ্বাস। পত্রিকার শুভ অষ্টম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আমি সম্পাদক পঙ্কজ কান্তি দে, কবি কুমার সৌরভ, বিন্দু তালুকদার, সজীব দে, আকরাম উদ্দিন সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে প্রতিদিন একটি পরিপাটি সুন্দর পত্রিকা পাঠকদের সামনে পরিবেশনের জন্য অভিনন্দন জানাই। একথা বললে অত্যুক্তি হবে না যে, সিলেট বিভাগের অন্যান্য জেলা থেকেও দৈনিক পত্রিকা বের হয়। কিন্তু মানের দিক থেকে সুনামগঞ্জের খবর তাদের মধ্যে অত্যন্ত উচ্চাঙ্গের এবং বৈশিষ্টপূর্ণ স্থানে রয়েছে। আমি ‘সুনামগঞ্জের খবর’ এর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সুনামগঞ্জের যে সব কৃর্তিমান সাংবাদিক সাংবাদিকতায় অনন্য অবদান রেখে সুনামগঞ্জের সুনাম বৃদ্ধি করে ইতিহাস ঐতিহ্য সৃষ্টি করেছেন তাদের মধ্যে ফজলুল হক সেলবর্ষী, মকবুল হোসেন চৌধুরী, শাহেদ আলী, মাহমুদ আলী, প্রজেষ কুমার রায়, মোহাম্মদ আব্দুল হাই, সালেহ চৌধুরী, হাসান শাহরিয়ার প্রমুখকে বিন¤্র শ্রদ্ধা জানাই ও স্মরণ করি। আমি পত্রিকাটির বহুল প্রচার শ্রীবৃদ্ধি এবং উত্তরোত্তর সাফল্য ও সমৃদ্ধি কামনা করি।
লেখক : সিনিয়র আইনজীবী ও কলামিষ্ট