সুরমা নদীর তীর থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

স্টাফ রিপোর্টার
শহরতলীর গুচ্ছ গ্রামের কাছে সুরমা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগ উঠেছে। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে গৌরারং ইউপি চেয়ারম্যান ফুল মিয়ার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ করা হয়েছে। এলাকাবাসীর পক্ষে এসব অভিযোগ করেছেন গুচ্ছগ্রাম ও পুরান লক্ষণশ্রী গ্রামের হারিস মিয়া, রইছ মিয়া ও তাজুল ইসলাম।
অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, গৌরারং ইউপি চেয়ারম্যান ফুল মিয়া ড্রেজার মেশিন দিয়ে পুরান লক্ষণশ্রী গুচ্ছগ্রামের সামনের সুরমা নদী থেকে বালু উত্তোলন করে গুচ্ছ গ্রামের বর্ধিত অংশ ভরাট করেন। পাশাপাশি ব্যবসার উদ্দেশ্যে ড্রেজার দিয়ে নদীর বালু উত্তোলন করে জগাইগাঁও গ্রামের কাছের মিয়ার খালের আরজ আলীর বাড়ির কাছে বালু মওজুদ করছেন। নদী থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করায় নদীর তীর ভেঙে পড়ার আশংকা রয়েছে।
গৌরারং ইউপি চেয়ারম্যান ফুল মিয়া বলেন,‘ গুচ্ছগ্রামের জন্য মাটি ভরাট করতে জেলা প্রশাসকের অনুমোদন নিয়েই বালু তোলা হচ্ছে। আর সপ্তাহ খানেক লাগবে। আমি প্রকল্প চেয়ারম্যান হিসেবে এই কাজ করছি। তবে বিক্রির জন্য কে বা কারা বালু মওজুদ করছে তা আমার জানা নেই।’
এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রদীপ সিংহ বলেন,‘নদী থেকে অবৈধভাবে বালু তোলার বিষয়ে লিখিত অভিযোগের বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে দেখা হবে। ’



আরো খবর